1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে ভিকটিকে উদ্ধার ও এজাহার নামীয় প্রধান আসামি মোঃ মোস্তাফা কামালসহ আটক-০২ আমতলীতে যত্রতত্র গড়ে ওঠা ৪৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। বদলগাছীতে ফায়ার সার্ভিস আসার পূর্বেই আগুন নিভাল গ্রামবাসী। সিডিএ’র নতুন চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছ টেপির বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের নব গঠিত পরিচালনা  কমিটি গঠন।  চট্রগ্রাম,রিয়াজ উদ্দিন বাজার এর বিপরিতে, রাইফেল ক্লাব এলাকায় চার্জার ফ্যানের মূল্য বেশি,ফুলকলির মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য থাকায় জরিমানা। বাঘায় কবি সাহিত্যিক পরিষদের ঈদ পুনর্মিলনী ও বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন । কালাইয়ে আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত স্থানীয় এমপি তার বন্ধু প্রার্থীর পক্ষ নেয়ায় নির্বাচন প্রভাবিত আশংকায় প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেন।   বটিয়াঘাটায় নারিকেল ফলনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

রাজশাহীর বাঘায় স্ত্রী হত্যা মামলায় কারামুক্ত আসতুলের লাশ।

  • আপডেট সময়ঃ রবিবার, ১৪ মে, ২০২৩
  • ৫৩ জন দেখেছেন

আব্দুল মান্নান বিশেষ প্রতিনিধিঃ  রাজশাহীর বাঘায় আজিজুল আলম (আসতুল) (৫৭) নামের একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (১২ মে)  উপজেলার চক আমোদপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের পুকুর পাড় থেকে তার লাশ উদ্ধার করে বাঘা থানা পুলিশ।  উপজেলার চক আমোদপুর গ্রামের মৃত ইয়াকুব প্রামানিকের ছেলে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের  (সন্দেহাজন) দ্বিতীয় ছেলে তারেক রহমান সনিকে থানায় নেওয়া হয়েছে।

 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে একই গ্রাামের আমজাদ হোসেনের ছেলে খায়রুল ইসলাম পুকুরের ধার দিয়ে যাওয়ার পথে তার লাশ দেখতে পেয়ে লোকজনকে খবর দেয়। স্থানীয়রা  লাশ দেখে শনাক্ত করেন মরদেহটি আজিজুল আলম (আসতুল)  পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে হেফাজতে নেয়।

নিহতের বড় ছেলে ফারুক হোসেন জানান, ১৯৯৮ সালে তার পিতা আজিজুল আলম (আসতুল) তার মা পারুল বেগমকে  কুপিয়ে হত্যা করেছিল। হত্যায় দায়ে যাবত জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামি ছিল। বছর দু’য়েক আগে করোনাকালীন সময়ে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় মুক্তি পায়। বাড়িতে আসার পর থেকে মানষিক ভারসাম্যহীনভাবে এখানে সেখানে ঘুরে বেড়াতো। এ অবস্থায় শিকলবন্দী করে বাড়িতে রাখা হতো। মাস খানেক আগে ঘরের জানালা ভেঙ্গে সে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। তারপর থেকে এলাকার গাছতলায় থাকতো। বাড়িতে থাকতোনা।

 

বাঘা থানার ওসি খায়রুল ইসলাম জানান, লাশের মাথা, মুখ, চোখ, গলা ও শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহৃ দেখে ধারনা করা হয়েছে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। লাশ উদ্ধারে পর মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে  ইউডি মামলা হয়েছে বলে জানান বাঘা থানার ওসি খায়রুল ইসলাম ইসলাম। তার ছেলে তারেক রহমান সনিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......