1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
দক্ষিণ হালিশহরে একাডেমি কাপ ফুটবলের উদ্ধোধন: ট্রাইবেকারে পদ্মা-মেঘনা জয়ী ঝিনাইগাতীতে জাতীয় বীমা দিবস উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত ২০ রমজানের মধ্যে জাহাজ ভাঙ্গা শ্রমিকদের বেতন-বোনাস প্রদানের দাবি ফুটপাত দখলকারীরা কীভাবে বিদ্যুৎ পায়, প্রশ্ন মেয়র রেজাউলের, “নতুন কারিকুলামের চ্যালেঞ্জে অভিভাবকগণও সম্পৃক্ত”-ইপিজেড কর্ণফুলী মডেল স্কুলের অনুষ্ঠানে বক্তারা চট্টগ্রাম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হত্যাকান্ডে জড়িত আসামির স্বীকারোক্তি ভিডিও ভাইরাল; আদালতে হত্যা মামলা দায়ের র‌্যব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে, ফেনী এবং চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৬টি কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধানসহ আটক- ২৮ প্রধানমন্ত্রী নিজ হস্তে রাষ্ট্রপতি পদক পড়িয়ে দিলেন বাদলগাছী থানা অফিসার ইনচার্জ কে। প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল পদকে ভূষিত হলেন বরগুনার পুলিশ সুপার মোঃ আবদুস ছালাম

শরীয়তপুর সরকারী জমি উদ্ধারের ব্যাপারে তৎপর হয়ে উঠেছে সদর উপজেলা প্রশাসন।

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৩০ জন দেখেছেন

রিপোর্টঃ শরীয়তপুর প্রতিনিধ। গত ২০ ডিসেম্বর দৈনিক আপরাধ অনুসন্ধান ও স্বাধীন প্রকাশ পত্রিকায় “শরীয়তপুরে সরকারী জমি বিক্রি, প্রশাসন নিরব!” এই শিরোনামে অনলাইন নিউজ পোর্টাল স্বাধীন প্রকাশ ও অপরাধ অনুসন্ধান ডটকম নেটে একটি সংবাদ প্রকাশের পর তৎপর হয়ে উঠে উপজেলা প্রশাসন।

ভূমি দস্যুদের হাত থেকে সরকারী জমি উদ্ধারের ব্যাপারে ৪ জানুয়ারী শরীয়তপুর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কুড়াশী গ্রামে সরেজমিনে যান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) মনিজা খাতুন।

অনলাইন নিউজ পোর্টাল স্বাধীন প্রকাশ ও অপরাধ অনুসন্ধান ডটকম নেটে যে তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে সংবাদটি প্রকাশ করা হয়েছিল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র সরেজমিনে গিয়ে তার প্রাথমিক সত্যতা খুঁজে পান। সেখানে স্থানীয় ভূমিদস্যু মেহেদী হাসান মোল্যা এবং দলিল লেখক জহিরুল হক বাচ্চু মোল্যা গংরা বিআরএস ৪১৭, ৪১৮, ৪১৯, ৪২০ এবং ৪২১ দাগের সর্বমোট ৩ একর ২৫ শতাংশ সরকারী জমি দখল করেছেন। যার প্রকৃত মালিক গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে জেলা প্রশাসক। সেই সরকারী জমি দখল করে ভরাট করা হয়েছে। এখন সেই জমির শ্রেণী পরিবর্তন করে প্লট আকারে বিক্রী করছেন।এ ব্যাপারে শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বলেন, “সরকারী জমি বিক্রী, প্রশাসন নিরব” শিরোনামে সংবাদটি আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। সংবাদটি প্রকাশের পর আমি উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনারকে ওই জমির নথি তলপ করতে বলি এবং জমির রেকর্ড পর্যালোচনা করার নির্দেশ দেই। তারপর ৪ জানুয়ারী আমি, উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার এবং পৌরসভার তহসীলদারকে সাথে নিয়ে সরেজমিনে যাই। সেখানে আপনাদের দেয়া সংবাদের সত্যতা মিলেছে। এখন উপজেলা প্রশাসন জমি উদ্ধারের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে নিচিত করেন, আরো বলেন সরকারী জমি কাহারো দখলে থাকলে তা উদ্বার করিবেন ও দখল মক্ত হবে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......