1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
শেখ ফজলুল হক মনি স্মৃতি সংসদ কর্তৃক আয়োজিত পিকনিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংসদ গোলাম সরোয়ার টুকু’র শুভেচ্ছা বিনিময় চট্টগ্রামে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলাম কে অ্যাম্বুলেন্স প্রদানে পিএইচপি ফ্যামিলি আমতলী পৌরসভা নির্বাচনে প্রতিক বরাদ্দ। বঙ্গলতলি বোধিপুর বন বিহারে ১০তম মহা সংঘদান উদযাপন শেরপুরে অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার “পরিমার্জিত কারিকলম দক্ষতা অর্জনে শিক্ষক প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই”-আদর্শ শিক্ষক ফোরামের শিক্ষক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন- জাতীয় দৈনিক সমকালে ‘বড় বোঝা হৃদয়ের ছোট্ট কাঁধে’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ ,পেলেন ভ্যানগাড়ী।। আমতলীতে গরুসহ চোর গ্রেপ্তার সিএমপি, পুলিশ কমিশনার মহোদয়ের ইপিজেড থানার দ্বিবার্ষিক পরিদর্শন সম্পন্ন।

বাগেরহাটে ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগে আটক ০১

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮৬ জন দেখেছেন

মোঃ ইমানুর রহমান,জেলা প্রতিনিধি, খুলনা,বাগেরহাটের মোংলায় ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগে মুসা খাঁন (২০) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার(০৬ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাগেরহাট জেলার শরনখোলা উপজেলার রায়েন্দা ফেরিঘাট এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

 

এর আগে একইদিন বিকেলে ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থীর বাবা মুসার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন।

 

গ্রেফতার মুসা খাঁন পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার বড়মাছুয়া গ্রামের আব্দুল হাকিম খানের ছেলে এবং মোংলা উপজেলার সেজবুনিয়া-মাকোড়ঢোন এলাকায় মিঠু খানের শ্যালক। মুসা মোংলায় দুলাভাই বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।

 

মোংলা থানা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (০৬ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে নির্যাতনের শিকার মেয়টি দাদা বাড়ী থেকে নিজ বাড়ী যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মাকড়ডোন এলাকার সাইফুল মুহুরির বাড়ীর সামনে পৌঁছালে মুসা খাঁন ওই কিশোরিকে জোরপূর্বক একটি চিংড়ি ঘেরের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন মুসা।

 

কিশোরীর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে মুসা পালিয়ে যায়। বাড়িতে যাওয়ার পরে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে থানায় অবহিত করে বিকেল ৩টার দিকে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায় পুলিশ। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাটানো হয়।

 

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, ওই মেয়ের বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা মুসা খাঁন কে গ্রেফতার করেছি। সে পালিয়ে মঠবাড়িয়া যাওয়ার চেষ্টা করছিল।

 

শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা, ডিএনএ টেস্টসহ অন্যান্য আইননানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে পাঠানো হবে।

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......