1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামি মোঃ রায়হান’কে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-১১। সীতাকুণ্ডে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ যানজট সৈনিক কল্যাণ সংস্থা Uno নিকট খেজুরের বীজ প্রদান বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মাস ব‍্যাপি সাংগঠনিক কর্মসূচি 2024 সম্পন্ন। বরগুনার তালতলীতে অবৈধ চোলাই মদসহ আটক ১ জন। “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়”– “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়” শেরপুরের ঝিনাইগাতী তিনজন হোটেল মালিককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা ২ কেজি গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী বরগুনা ডিবি পুলিশের হাতে আটক।

নানিয়ারচরের নারী ধর্ষণ মামলার আসামি আটক

  • আপডেট সময়ঃ রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৩৭ জন দেখেছেন

তুফান চাকমা, নানিয়ারচর প্রতিনিধিঃ– রাঙামাটির নানিয়ারচরে নারী ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তি কে আটক করেছে নানিয়ারচর সেনা জোন। রবিবার (১৯ জানুয়ারি) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুতুকছড়ি বাজার এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয় বলে সেনাবাহিনীর এর পক্ষ থেকে জানানো হয়। আটককৃত ব্যক্তি নানিয়ারচর উপজেলার হাজাছড়ি গ্রামের বাসিন্দা সাধন কুমার চাকমার পুত্র শিপন চাকমা(৩৫)। এরআগে, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ওই নারী বাদি হয়ে শিপন চাকমাকে আসামি করে কোতায়ালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শিপন চাকমা আমার গ্রামের প্রতিবেশী ও পূর্ব পরিচিত, ১৬/০২/২৩ ই তারিখে আমার শ্বশুর বাড়ি বামে তৈমিদং থেকে বনরুপা বাজারে ছেলের জন্য কাপড় কেনা কাটা করতে গেলে শিপন চাকমার সাথে দেখা হলে, সে আমাকে একটা কাজের জন্য মোটরসাইকেলে নিয়ে রিজার্ভ মুখ কাপ্তাই লেক সংলগ্ন পাহাড়ের পাদদেশে নিয়ে আমার সম্ভ্রমহানি করেন। এই ঘটনায় বিলাসী চাকমা (ছদ্মনাম)নিজে বাদী হয়ে রাঙ্গামাটি সদর থানায় শিপন চাকমার নামে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১৯ শে ফেব্রুয়ারি সকালে কুতুকছড়ি বাজার এলাকা থেকে নানিয়ারচর সেনা জোনের সদস্যরা শিপন চাকমাকে আটক করে রাঙ্গামাটি সদর কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করেন। আটককৃত ব্যক্তি শিপন চাকমার নামে রাঙ্গামাটি সদর কোতোয়ালি থানার মামলা নং-১৪,তারিখ:১৬/২/২০২৩ ধারা-২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (স-০৩) এর ৯(১) মূলে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা রয়েছে বলে একটি সূত্রে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......