1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামি মোঃ রায়হান’কে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-১১। সীতাকুণ্ডে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ যানজট সৈনিক কল্যাণ সংস্থা Uno নিকট খেজুরের বীজ প্রদান বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মাস ব‍্যাপি সাংগঠনিক কর্মসূচি 2024 সম্পন্ন। বরগুনার তালতলীতে অবৈধ চোলাই মদসহ আটক ১ জন। “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়”– “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়” শেরপুরের ঝিনাইগাতী তিনজন হোটেল মালিককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা ২ কেজি গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী বরগুনা ডিবি পুলিশের হাতে আটক।

খুলনায় মিডিয়া কর্মিদের নিয়ে রাউন্ড টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪
  • ১৪ জন দেখেছেন

মহিদুল ইসলাম (শাহীন) খুলনা থেকে,সি এস ও, এবং মিডিয়াদের মধ্যে একটি শক্তিশালী জোট গঠনের লক্ষে ডিএনএইচ পদ্ধতিতে LGBTQIA সম্প্রদায় এবং যুব মহিলার ডিএনএইচ ফ্রেমওয়ার্কের জন্য ডিভাইডার এবং সংযোগকারী সনাক্তকরণের বিষয়ে গোলটেবিল বৈঠক দৈনিক প্রবাহের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। গোলটেবিল বৈঠক ২৪শে জুন সোমবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হয়ে দুপুর দেড়টায় শেষ হয়। সি ডাব্লিউ এফ এলায়েন্স (সিডাব্লুএফ, সি এম কে এস,ও দৈনিক প্রবাহ) এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায়, দাতা সংস্থা দ্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর অর্থায়নে, ফ্রী প্রেস আনলিমিটেড, আর্টিকেল নাইনটিন, এর সহযোগিতায় এ রাউন্ড টেবিল কনফারেন্সড অনুষ্ঠিত হয়।

দৈনিক প্রবাহের সহকারী সম্পাদক মোহাম্মদ মেহেদী খান মাসুদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের বিশেষ প্রতিনিধি মোস্তফা জামান পপলু।
রাউন্ড টেবিল কনফারেন্সে বিস্তারিত তথ্য পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন এর মাধ্যমে উপস্থাপন করেন সি ডব্লিউ এফ এর পরিচালক ও সি ডব্লিউ এফ এলায়েন্স এর টিম লিডার মোহাম্মদ নাসিমুল হক। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সি ডব্লিউ এফ এর এডভোকেসি ও কমিউনেকেশন অফিসার ইভানা আফরিন। শুভেচ্ছা বক্তব্য পেশ করেন দৈনিক প্রবাহ এলায়েন্স এর প্রজেক্ট কোয়ার্ডিনেটর ও গ্লোবাল টেলিভিশনের খুলনা বিভাগীয় প্রধান আনিছুর রহমান কবির।

রাউন্ড টেবিল কনফারেন্সে খুলনার ১৫ জন মিডিয়া এক্সপার্ট ও ১৫ জন সিএসও এর সমন্বয়ে একটি শক্তিশালী ডি এন এইচ জোট গঠন করা হয়। জোটের সদস্যরা তিনটি গ্রুপে ভাগ হয়ে একটি বিশ্লেষণ করেন।
এর মধ্যে প্রথম গ্রুপ সাংবাদিকদের নিয়ে বিশ্লেষণ করেন। দ্বিতীয় গ্রুপ যুব মহিলাদের নিয়ে বিশ্লেষণ করেন। এবং তৃতীয় গ্রুপ হিজরা ও সমকামিদের নিয়ে বিশ্লেষণ করেন। সাংবাদিকদের নিয়ে বিশ্লেষণকারী গ্রুপের মধ্যে ছিলেন , কৌশিক দে বাপ্পি কালের কন্ঠ, মোস্তফা জামান পপলু মাছরাঙ্গা টিভি, এস এম ইয়াসিন আরাফাত রুমি দীপ্ত টিভি, আশরাফুল ইসলাম নুর সময়ের খবর, আরিফুল ইসলাম দেশ সংযোগ, সিএসও এর মধ্যে ছিলেন অশোক ব্লাস্ট, আজিজুল রুপসা এনজিও, তুফান দীপ্তি ফাউন্ডেশন। এ সকল সংবাদ কর্মী ও সি এস ও এর বিশ্লেষণে গুরুত্ব পায়
বর্তমান সাংবাদিকদের অবস্থান ,সাংবাদিকদের চাকরির নিশ্চয়তা ,সুনির্দিষ্ট নীতিমালা , প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতির অভাব, সাংবাদিকদের নির্দিষ্ট কোন পরিসংখ্যান না থাকা, সাংবাদিকদের নিয়োগ ও যোগ্যতার অভাব, অতি ঝুঁকি,এ সকল বিষয়ে উত্তোলন করতে হলে সাংবাদিকদের প্রেস কাউন্সিল যথার্থ কার্যকর করতে হবে, সাংবাদিকতার সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন ও কার্যকর করতে হবে, নিবন্ধনহীন গণমাধ্যম বন্ধ করা ও যত্রতত্র গণমাধ্যমের অনুমতি না দেওয়া ,ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন করা, সাংবাদিকদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ ও কোর্স চালু করা, আইনি সহায়তা সেল গঠন করা , তথ্য অধিকার আইন ২০০৮ বাস্তবায়ন করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে উঠে আসে।
দ্বিতীয় গ্রুপটি কাজ করে যুব মহিলাদের নিয়ে , এ বিষয়ে বিশ্লেষণ করেন দীপঙ্কর রায় ডেইলিস্টার, কলিং হোসেন আরজু অনির্বাণ, আহমেদ মুছা রঞ্জু দৈনিক পূর্বাঞ্চল, মোঃ কামরুল হোসেন মনির দৈনিক প্রবাহ, সি এস ও হিসেবে ছিলেন সুজানা রুপা নাবোলোক, এস কে মোঃ টুটুল স্কোপ, এতিমের বিশ্লেষণে উঠে আসে,
যুব মহিলাদের শিক্ষার অভাব, বাল্যবিবাহ, সামাজিক বৈষম্য, যৌন হয়রানি, আর এ সব থেকে উত্তোলনের উপায় হিসাবে বিশ্লেষণে যা উঠে এসেছে , সম্মিলিত পদ্ধতিতে কাজ করা, নারীদের অধিকার আদায়ে একটি নেটওয়ার্ক ভিত্তিক কাজ করা, এবং ডিজিটাল এডভোকেসি প্লাটফর্ম তৈরি করা।
তৃতীয় গ্রুপটি কাজ করেন হিজড়া জনগোষ্ঠী ও সমকামী দের নিয়ে , এ গ্রুপে ছিলেন, মাকসুদ আলী দৈনিক খুলনা, মোঃ সুমন দৈনিক খুলনা টাইমস, এ সময় সি এসওদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শুভ, সবিতা, নজরুল,ইমন ও পলাশ । এসকল মিডিয়া ও সিএসও এদের বিশ্লেষণে উঠে আসে , হিজরা জনগোষ্ঠী সমাজ থেকে উপেক্ষিত, আলাদা স্থানে থাকে, অধিকার বঞ্চিত এবং নানাভাবে নির্যাতিত, পরিবারের সম্পদ থেকে বঞ্চিত এবং পারিবারিক সম্পর্ক থেকে বিচ্যুত। এছাড়া সমকামীরা ম্যারিটাল রেপ এর শিকার হন, ইন্টার সেক্স বাচ্চাদের প্রাপ্তবয়স্ক হবার আগে লিঙ্গ পরিবর্তন করা, নিজেদের জেন্ডার পরিচিতি প্রকাশ করতে না পারা, চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত ও সমাজ থেকে হয়রানির শিকার হয় ।

এর থেকে উত্তরণের উপায় হিসেবে আইনের পরিবর্তন, মৌলিক সেবা নিশ্চিত করা ,সমাজকে সচেতন করা, ত্রুটিপূর্ণ আচরণ সংশোধন ও উদ্বুদ্ধ করা, আয় বর্ধনামূলক কাজের সম্পৃক্ত করা ,সামাজিক কর্মকাণ্ডে তাদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করা, ভোকেশনাল ট্রেনিং এর মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি করা সহ বিভিন্ন বিষয়ে উঠে আসে।
অনুষ্ঠানে এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন , দৈনিক প্রবাহ, সিডাব্লুএফ এবং সিএম কেএস এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......