1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও কুরবানীর সমস্ত গোশত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষদের মাঝে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের বনগ্রাম বাজার, জলিরপাড়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শেখ মোঃ জিন্নাহ।। এবারও চসিকে কোরবানির বর্জ্য পরিস্কার -পরিচ্ছন্নতায় শীর্ষে দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ড শিবগঞ্জে ভ্যান চালকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হারুন অর রশিদ ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”। 

বটিয়াঘাটায় আধুনিক প্রযুক্তিতে চাষাবাদের উপর কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

  • আপডেট সময়ঃ সোমবার, ৩ জুন, ২০২৪
  • ২৫ জন দেখেছেন

বটিয়াঘাটা(খুলনা)প্রতিনিধি,

আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের ধান,গম ও পাট বীজ উৎপাদন সংরক্ষণ ও বিতরণ প্রকল্পের আওতায় বটিয়াঘাটা উপজেলার হরিনটানা গ্রামে এক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।
সোমবার বিকাল ৫ টায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বটিয়াঘাটা উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জীবানন্দ রায় ও দীপংকর মন্ডল।
সংশ্লিষ্ট ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জীবানন্দ রায় বলেন,বটিয়াঘাটা উপজেলা টি উপকূলীয় এলাকায় হওয়ার এখানকার মাটি ও পানি লবনাক্ত ফলে লবন সহনশীল জাত ব্রি-ধান-৬৭ খুব ভালো ফলন হয়েছে, বীজ উৎপাদনের যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পাদন করার পর প্রায় ৩০ মন বীজ সংরক্ষণ করা হয়েছে। এলাকার কৃষকদের বেশ চাহিদা রয়েছে এই জাতটির। ইতিমধ্যে বেশ কিছু বীজ কৃষকেরা ক্রয় করেছেন।
প্রধান অতিথি বলেন,এই প্রকল্পের আওতায় এলাকার পনেরো জন কৃষক কৃষাণী মিলে পাঁচ একর জমিতে ব্রিধান -৬৭ চাষাবাদ চাষাবাদ করা হয়েছে যা বীজ

হিসেবে সংরক্ষণ করা হয়েছে। আমরা বীজতলা থেকে কর্তন পর্যন্ত নিয়মিত পরিদর্শন এবং কৃষক কৃষাণী দেরকে নিয়ে পাঁচ দিন প্রশিক্ষণ দিয়েছি, ফলে কৃষক কৃষাণীরা উপকৃত হয়েছে এবং খুব ভালো ফলন হয়েছে,এজন্য কৃষকেরা খুব খুশি। মাঠ দিবসে শতাধিক কৃষান কৃষাণী উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......