1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও কুরবানীর সমস্ত গোশত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষদের মাঝে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের বনগ্রাম বাজার, জলিরপাড়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শেখ মোঃ জিন্নাহ।। এবারও চসিকে কোরবানির বর্জ্য পরিস্কার -পরিচ্ছন্নতায় শীর্ষে দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ড শিবগঞ্জে ভ্যান চালকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হারুন অর রশিদ ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”। 

জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী গবা খাল পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান

  • আপডেট সময়ঃ শনিবার, ১ জুন, ২০২৪
  • ৮৫ জন দেখেছেন

মো: রাশেদ আকন্দ জামালপুর:
শুক্রবার (৩১ মে) সকাল ৭.০০ ঘটিকায় জামালপুর জামালপুর শহরের জলাবদ্ধতার দূর করার জন্য ঐতিহ্যবাহী গবাখাল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ,দূষণ ও দখলমুক্ত করতে সর্বস্তরের নাগরিক, সমাজের প্রতিনিধিসহ দলমত নির্বিশেষে সকল জনসাধারণকে নিয়ে গবাখাল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন কর্মসূচিতে স্বত:স্ফর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন সকল সরকারি দপ্তরের প্রধানগণ ও জনপ্রতিনিধিবৃন্দ।

জনাব মোঃ আবুল কালাম আজাদ এমপি, মাননীয় সংসদ সদস্য জামালপুর ৫ মহোদয় এর আহ্বানে একত্রিত হয়ে উক্ত কাছে অংশগ্রহণ করেন জামালপুর জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মোঃ কামরুজ্জামান বিপিএম।

জনাব ছানুয়ার হোসেন ছানু, মেয়র, জামালপুর পৌরসভা এর উদ্যোগ ও ব্যবস্থাপনায় আরো অংশগ্রহন করেন জেলা প্রশাসক, জামালপুর জনাব মোঃ শফিউর রহমান; নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব বিজন কুমার চন্দ সহ জেলার সকল সরকারি দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ সহ সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিবৃন্দ সহ জামালপুর শহরের সাধারণ জনগন।

পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কাজে জেলা পুলিশ এর উদ্যোগ জনসেবার লক্ষ্যে বিভিন্ন লজিস্টিক সাপোর্ট দেয়া হয়।

পরিবেশ ও মানবকল্যাণের কথা চিন্তা করে আজ থেকে প্রায় ৬৫ বছর আগে গবাখাল খনন করা হয়। জামালপুর শহরের জলাবদ্ধতা, বন্যার কবল থেকে রক্ষার পাশাপাশি কৃষি উৎপাদন ও মৎস্য আহরণের লক্ষ্যে ১৯৬০ প্রায় ৬৫ বছর আগে এই খাল খনন করা হয়।

“শেখেরভিটা থেকে শুরু করে মনিরাজপুর, ছুটগড়, সিংড়িবিল, পলিশা, ধোপাকুড়ি, নাকাটি ও দামেশ্বর হয়ে কেন্দুয়া কালবাড়ি বাজার সংলগ্ন ঝিনাই নদীতে সংযোগ করা হয়”

পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ও দখলমুক্ত কর্মসূচিতে আসুন আমরা সবাই একযোগে অংশগ্রহণ করি।

আমরাই পারি – আমরাই পারবো। আমার শহর –আমিই গড়বো । আমিই হবো সমাধান।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......