1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
শেরপুরে আত্মহত্যায় প্ররোচনাকারী প্রধান আসামী গ্রেপ্তার চট্টগ্রামে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সংশোধনী সেবা সহজ করণ করা হচ্ছে সুদীপ কুমার চক্রবতী-বিপিএম সেবা,আপনাকে ভোলা সহজ নয়। শিবগঞ্জে ট্রাকচাপায় ব্যবসায়ী নিহত র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে পাহাড়তলী থানার আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি মোঃ শামসুল আলম রানা সহ  গ্রেফতার-০২ ঝিনাইগাতীতে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ আমতলীতে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত হওয়ার ঘটনায় পৃথক দু’টি তদন্ত কমিটি গঠিত বহুল আলোচিত রাসেল’স ভাইপার সাপের সন্ধান পাওয়া গেছে। শিবগঞ্জে অনলাইন প্রেস ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হারুন অর রশিদ যশোর অভয়নগরে বেপরোয়া বালিবাহী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে যুবক নিহত

মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্য পণ্য বিক্রি হচ্ছে ভিবিন্ন কৌশলে, অপকর্ম লুকাতে নিজেকে পরিচয় দেন গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে। 

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ১৪ মে, ২০২৪
  • ৫৯ জন দেখেছেন

জাকারিয়া হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম মহানগরীর ইপিজেড থানাধীন ৩৯ নং ওয়ার্ড বন্দর টিলা কাঁচাবাজারের পেছনে নাহিদ ভিলার পাশে, বায়েজিদ ইলেকট্রনিক  নামক  মু্র্দি দোকানে মেয়াদোত্তীর্ন  ভিবিন্ন খাদ্য পণ্য বিক্রি করে যাচ্ছেন দোকানের মালিক আবুল বাশার নামের এই ব্যাক্তি। গত ১২/০৫/২০২৪ ইং তারিখে প্রতিবেদক এক গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারেন, আবুল বাশারের এই দোকানে ও দোকানের স্টোরে রয়েছে মেয়াদোত্তীর্ন ভিবিন্ন ভেজাল খাদ্য পণ্য,  যেমন  আটা, ময়দা, মিনারেল ওয়াটার সহ আরো অনেক পণ্য। প্রতিবেদককে উক্ত সময়ে সংবাদদাতা  আরো জানান এই মুহুর্তে দোকানের মালিক মেয়াদোত্তীর্ন পণ্য বিক্রেতা আবুল বাশার তীর হোল হুইল আটা নামক পন্য অনেক আগেই মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় প্যাকেট কেটে আটা বের করে খোলা আটার বস্তায় আটা সংরক্ষণ করে,  পরবর্তীতে খোলা আটা বলে বিক্রি করার জন্য এবং প্যাকেট গুলো কৌশলে ডাষ্টবিন সহকারে ভিবিন্ন জায়গায় লুকিয়ে ফেলে দেয়। তাৎক্ষণিক প্রতিবেদক ১২/০৫/২০২৪ ইং তারিখে সন্ধ্যা আনুমানিক সময় ৬ঃ৪৫ মিনিটে ঘটনাস্থল আবুল বাশারের দোকানে গেলে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়।

উক্ত  মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যর  বিষয়ে আবুল বাশারের কাছে জানতে চাইলে সে নানান রকমের কৌশল অবলম্বন করে ও ভিবিন্ন তালবাহানা মূলক কথা বার্তা বলেন,  এক পর্যায়ে সে প্রথমে নিজেকে গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়ে একটি অনলাইন নিউজ  পোর্টালের আইডি কার্ড দেখান এবং আরো অন্যান্য নিউজ পোর্টালের প্রতিনিধি হিসেবে গত বেশ কয়েক বছর কাজ করেছেন বলে নিজেকে দাবি করেন,  প্রতিবেদকের সঙ্গে অন্য বেশ কয়েকজন মিডিয়া কর্মীর নাম উল্লেখ করে উচ্চ স্বরে  কথা বলার ও উত্তেজিত আচরণ করার চেষ্টা করেন।

প্রতিবেদক সব কিছু এরিয়ে গিয়ে তাকে ঘটনার সম্পর্কে আবারো জানতে চাইলে সে বলেন আমার গোডাউনে মেয়াদোত্তীর্ন অনেক পণ্য রয়েছেন আমি সময় মতো তা কোম্পানিকে ফেরত দিব, সে আরো বলেন আমার কাছে সরকারি ভিবিন্ন দপ্তরের রেশনের খাদ্য পণ্য একটি পরিচিত লিংকের মাধ্যমে আসে,  আমি তার কাছ থেকে কিনে নেই এবং আমার দোকানে বিক্রি করি, তাতে আমার কোন সমস্যা নেই কারন আমার সর্ব মহলে একটা সুসম্পর্ক রয়েছেন। প্রতিবেদক পুনরায় তাকে আটার প্যাকেট কেটে  প্যাকেট লুকিয়ে ফেলার ও আটা গুলো কি করছে জানতে চাইলে সে বলে আমার নিজের প্রতিদিন ৮/১০ কেজি আটা ময়দার প্রয়োজন হয় তাই সামান্য কয়েক প্যাকেট মেয়াদোত্তীর্ণ আটা আমি নিজে বাসায় খাওয়ার জন্য প্যাকেট কেটে আটা রেখে প্যাকেট ফেলে দি, কিন্তু বাস্তব চিত্রে পাওয়া যায় তার ভিন্নতা প্রতিবেদক দোকানে আশে পাশে ডাষ্টবিন থেকে ৬০/ ৭০ টির বেশি প্যাকেট খুজে পায়,  এবং সাথে সাথে তার গোডাউনে আরো কি পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ন পণ্য রয়েছে তা দেখতে চাইলে সে না দেখিয়ে এ বিষয়ে পরবর্তীতে দরকার হলে কথা বলবেন বলে এড়িয়ে যায়।

আমাদের দেশে-ভেজাল, নকল ও নিম্নমানের নানা পণ্যে ছেয়ে গেছে। শিশুর গুড়ো দুধ থেকে বৃদ্ধের ইনসুলিন, রুপচর্চার কসমেটিক থেকে শক্তি বর্ধক ভিটামিন, এমন কি বেঁচে থাকার জন্য যা অপরিহার্য, সেই পানি এবং জীবন রক্ষাকারী ওষুধ পর্যন্ত এখন ভেজালে ভরপুর।

 

টোকাই থেকে ধনীর সন্তান, ভেজালের ভয়াবহতা থেকে নিরাপদ নয় কেউ-‘যেন ভেজালেই জন্ম, ভেজালেই বেড়ে ওঠা, ভেজালের রাজ্যেই বসবাস ।মানুষের মৌলিক চাহিদার (খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য) মধ্যে খাদ্য একটি প্রধান ও অন্যতম মৌলিক চাহিদা। জীবন ধারণের জন্য খাদ্যের কোনো বিকল্প নেই। সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিটি মানুষের প্রয়োজন বিশুদ্ধ ও পুষ্টিকর খাদ্য। আর এ বিশুদ্ধ খাদ্য সুস্থ ও সমৃদ্ধশালী জাতি গঠনে একান্ত অপরিহার্য। কিন্তু বাংলাদেশে বিশুদ্ধ খাবার প্রাপ্তি কঠিন করে ফেলেছে বিবেকহীন ব্যবসায়ী ও আড়তদার। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও এদের নিয়ন্ত্রণ করতে হিমশিম খাচ্ছে।

মেয়াদোত্তীর্ন পণ্য বিক্রেতা আবুল বাশারের এ বিষয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলা ও বিভাগীয় কার্যালয়, টিসিবি ভবন বন্দরটিলা চট্টগ্রাম কর্তৃপক্ষের নিকট জানতে চাইলে,১৪ /০৫/২০২৪ ইং তারিখে দুপুর ১২ঃ০৭ ঘটিকার সময়ে  ভোক্তা অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলার দায়িত্ব প্রাপ্ত সহকারি পরিচালক নাসরিন আক্তারের সাথে  এ বিষয়ে কথা বলতে গেলে সে প্রতিবেদকে তার ব্যাস্ততা দেখিয়ে কোন প্রকার কথা না বলে তার অফিস ত্যাগ করেন,  পরবর্তী একই তারিখ বিকেল ৩:৩০ মিনিটের সময় পুনরায়, রানা দেব নাথ – সহকারী পরিচালক এর নিকট উক্ত বিষয়ে কথা বললে সে বলেন আমাদের whatsapp নাম্বারে দোকানের ঠিকানা পাঠান আমরা ব্যাবস্থা নিব।

 চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ইপিজেড থানায় বিষয়টি অবগত করলে কর্তৃপক্ষ বলেন, সঠিক যাচাই বাছাই করে বিষয়টি দেখছি।

সরকারি প্রতিষ্ঠান গুলোকে দায়িত্ব সচেতন হতে হবে এবং ভেজাল বিরোধী কার্যক্রম সব সময় চালু থাকা জরুরি। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কর্তব্যে অবহেলা এবং উৎকোচ ও উপঢৌকন গ্রহণসহ সব ধরনের দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়াও জরুরি। সেই সাথে নিরাপদ খাদ্যের দাবিতে গড়ে তুলতে হবে দেশব্যাপী জোরালো সামাজিক আন্দোলন।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......