1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামি মোঃ রায়হান’কে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-১১। সীতাকুণ্ডে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ যানজট সৈনিক কল্যাণ সংস্থা Uno নিকট খেজুরের বীজ প্রদান বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মাস ব‍্যাপি সাংগঠনিক কর্মসূচি 2024 সম্পন্ন। বরগুনার তালতলীতে অবৈধ চোলাই মদসহ আটক ১ জন। “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়”– “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়” শেরপুরের ঝিনাইগাতী তিনজন হোটেল মালিককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা ২ কেজি গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী বরগুনা ডিবি পুলিশের হাতে আটক।

বদলগাছীতে প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানে ঘুষ গ্রহনের  অভিযোগ – তদন্তে সমাজ সেবা অফিসার । 

  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৬৫ জন দেখেছেন

এনামুল কবীর এনাম, বদলগাছী উপজেলা প্রতিনিধি, (নওগাঁ):- 

নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার ৪ নং মিঠাপুর ইউনিয়নে প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানে ঘুষ গ্রহন,এলাকায় তোলপাড়।

 

অভিযোগ রয়েছে, বদলগাছী  উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড’র  মহিলা মেম্বার মোসলেমা আক্তারের বিরুদ্ধে ৮০০০/ আট হাজার টাকা ঘুষ গ্রহনের

পর  প্রতিবন্ধী ভাতা  না পাওয়ায়, গত ৫ নভেম্বর  লিখিত অভিযোগ করেন ৫ নং ওয়াডের গন্ধর্বপুর গ্রামের মৃত:  গোলাম মোস্তফার স্ত্রী  বিধবা অসহায়  রেবেকা সুলতানা।তিনি  দুই সন্তানের জননী  স্বামী কে অকালে হারিয়ে অতি কষ্টে দিনাআতীপাত করছেন। দুই ছেলের মধ্যে ছোট ছেলে মাসুম রব্বানী মানসিক প্রতিবন্ধী।যাহার আইডি ২০০৫৬৪১০৬৮৪১২৮৪১৭-০৩

অভিযোগ ও রেবেকার বাড়িতে গিয়ে  জানা যায় প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করার জন্য আমি যোগাযোগ করি সে বলে ৮ হাজার টাকা হলে হবে।আমি সেই প্রত্যাসায় তিন মাসের সময়ে প্রতিবেশি একজনের কাছ থেকে ৮ হাজার  টাকা হাওলাত নিয়ে  দিয়েছিলাম।

 কিন্তু কার্ড করে দেননি মহিলা মেম্বার মোসলেমা।৮ হাজার  টাকা ফেরত  চাহিলে বিভিন্ন তালবাহানা করেন, মর্মে অভিযোগ করেছি। 

 

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলপনা ইয়াসমিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ টি তদন্তের জন্য সমাজ সেবা কে দায়িত্ব দিয়েছি, সঠিক তদন্ত এলে সঠিক পদক্ষেপ নেয়া হবে।

সমাজ সেবা অফিসার রাজিব আহম্মেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ টি ইউএনও সার আমাকে দিয়েছে আমি সঠিক তদন্তের জন্য কাজ করছি। গতকাল  গন্ধর্বপুর গ্রামের রাজ্জাক, জহুরুল সহ গ্রামবাসীর কাছে জানতে চাইলে তিনারা বলেন, আমারা জানি মহিলা মেম্বার মোসলেমা টাকা গ্রহন করেছেন।রেবেকা একজন বিধবা অসহায় দুই ছেলে কে নিয়ে অধিক কষ্টে দিন পার করে।

 

বিষয় টি ইউপি চেয়ারম্যান  ফিরোজ হোসেনের কাছে মোবাইল ফোনে ইউনিয়নের সদস্যা মোসলেমার বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহনের অভিযোগ হয়েছে আপনি বিষয় টি কিভাবে দেখছেন।

 

তিনি দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান’র প্রতিনিধি এনাম কে  বলেন, আমাকে ইউএনও সাহেব জানিয়েছে আমি তদন্ত কারী কর্মকর্তা সমাজ সেবা অফিসার কে সঠিক তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেছি।কারন তাকে এর আগেও অনেক বার সতর্ক করা হয়েছে।

 

উক্ত অভিযোগ বিষয়ে মহিলা মেম্বার মোসলেমার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন অভিযোগটি  মিথ্যা।

 

 ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আহসান হাবীব তার স্ত্রীকে দিয়ে  নির্বাচনে আমার প্রতিদন্দী করিয়েছিলেন, নির্বাচনে হেরে আমার বিরোধিতা করেন এবং তিনি রেবেকা সুলতানা কে সঙ্গে  নিয়ে এসে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। মোসলেমা আরও বলেন আমি এক হাজার টাকা  নিয়েছি।

 

উক্ত বিষয়ে মিঠাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আহসান হাবীবের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কোন কিছুই জানিনা। এবং কাউকে নিয়ে গিয়ে কোন অভিযোগ করি নাই।

 

ঘুষ গ্রহন সঠিক হলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হউক। ৫ নং ওয়াডের মেম্বার এরশাদ আলী মজনুর  কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,  ৮ হাজার টাকা নিয়েছে বলে লোক মারুফতে জেনেছি।

স্হানীয় গ্রামবাসী সহ অধিকাংশ নারী পুরুষ জানান গত ঈদের রিলিফের চাল বিক্রি করেছেন, সরকারি ত্রানের তিন বান্ডিল ডেউ টিন বিক্রি করেছে শুনেছি। স্হানীয় এলাকার স্বচেতন মহল জানান রেবেকা সুলতানার প্রতিবন্ধী ছেলে মাসুম রব্বানী মানসিক এবং অসহায় পরিবারকে ভাতার আওতায় নেয়ার ব্যবস্হা নিতে সমাজ সেবা অফিসার ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেনের প্রতি প্রত্যাশা করেছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিষয় টি নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চলছে।

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......