1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলায় “যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত” আসামি মোঃ সুমন গ্রেফতার।  বাঘায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত এক ,গুরুতর আহত দুই। আমতলীতে হিরন হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন মৃধা গ্রেপ্তার  সাজেকে কাচালং নদীতে ফুল ভাসানোর মধ্য দিয়ে বিঝু উৎসবের সুচনা পুলিশি তৎপরতা ও আন্তরিক ভূমিকায় মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) মহিলার বাচ্চা প্রসবে সহযোগিতা । ভোটারদের টাকা দিতে বাঁধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে চেয়ারম্যান সমর্থককে হত্যা। শেরপুর পুলিশ লাইন্সে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত শিকড় ঝিনাইগাতীর উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সেবক, কামরুজ্জামান (বাবলু কেন্দ্রীয় কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপ-কমিটির (সদস্য) জামালপুরের সানন্দবাড়ীতে অসকস বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী উপহার হতদরিদ্রদের

বাঘাইছড়িতে ইউপিডিএফের উদ্যোগে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৩৭ জন দেখেছেন

রুপম চাকমা, বাঘাইছড়ি উপজেলা, প্রতিনিধি:-

“যত্রতত্র প্লাস্টিক পলিথিন ফেলে বিপর্যয় ডেকে আনবেন না, বাড়ি বা দোকানের পাশে নির্দিষ্ট গর্ত খুঁড়ে প্লাস্টিক ও পলিথিন বর্জ্য ফেলুন এবং পরে সময়মত পুড়ে ফেলুন” এমন আহ্বানে রাঙামটির বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলিতে প্লাস্টিক ও পলিথিন বর্জ্য পরিস্কার অভিযান কর্মসূচি পালন করেছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) বাঘাইছড়ি ইউনিট।
আজ মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর ২০২৩) সকাল ১০টায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন ইউপিডিএফের বাঘাইছড়ি ইউনিটের সংগঠক আর্জেন্ট চাকমা। এতে ইউপিডিএফ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ স্থানীয় যুবকরা অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় বঙ্গলতলি সরকারি প্রার্থমিক বিদ্যালয় মাঠ থেকে শুরু করে মধ্যে দোকান, বটতল, ও নুয়ো দোকান এলাকায় প্লাস্টিক ও পলিথিন জাতীয় বর্জ্য কুঁড়িয়ে আগুন দিয়ে পুড়ে ফেলা হয়।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান বিষয়ে ইউপিডিএফের সংগঠক আর্জেন্ট চাকমা বলেন, প্লাস্টিক ও পলিথিন একটি ক্ষতিকারক পদার্থ। এটি মাটি ও পরিবেশের ক্ষতি করে। তাই এসব বর্জ্য যেখানে সেখানে না পেলে একটি নির্দিষ্ট স্থানে গর্ত খুঁড়ে বা ডাস্টবিনে ফেলতে হবে এবং পরে সময়মত সেগুলো যথাস্থানে পুড়িয়ে ফেলতে। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে আমাদের সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সচেতন থাকতে হবে। কারণ ময়লা-আবর্জনা ও প্লাস্টিক বর্জ্য যত্রতত্র ফেলার কারণে পরিবেশের ওপর খারাপ প্রভাব পড়ে। এতে মশাবাহিত ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গুসহ নানা রোগ ব্যাধির প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বাড়ি, দোকানের আশ-পাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা প্রয়োজন।


যুব নেতা বিরো চাকমা বলেন, আমরা একটু সচেতন হলেই নানা রোগব্যাধি থেকে মুক্ত থাকতে পারি। তাই আগে আমাদেরকে সচেতন হতে হবে এবং পাশাপাশি অন্যজনকেও সচেতন করতে হবে।
তিনি প্লাস্টিক ও পলিথিন জাতীয় বর্জ্য যত্রতত্র না ফেলে প্রতিটি দোকানে একটি ডাস্টবিন রাখার জন্য সকল দোকানদারদের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......