1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে ভিকটিকে উদ্ধার ও এজাহার নামীয় প্রধান আসামি মোঃ মোস্তাফা কামালসহ আটক-০২ আমতলীতে যত্রতত্র গড়ে ওঠা ৪৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। বদলগাছীতে ফায়ার সার্ভিস আসার পূর্বেই আগুন নিভাল গ্রামবাসী। সিডিএ’র নতুন চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছ টেপির বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের নব গঠিত পরিচালনা  কমিটি গঠন।  চট্রগ্রাম,রিয়াজ উদ্দিন বাজার এর বিপরিতে, রাইফেল ক্লাব এলাকায় চার্জার ফ্যানের মূল্য বেশি,ফুলকলির মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য থাকায় জরিমানা। বাঘায় কবি সাহিত্যিক পরিষদের ঈদ পুনর্মিলনী ও বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন । কালাইয়ে আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত স্থানীয় এমপি তার বন্ধু প্রার্থীর পক্ষ নেয়ায় নির্বাচন প্রভাবিত আশংকায় প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেন।   বটিয়াঘাটায় নারিকেল ফলনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে ‘‘অপু গ্যাং” নামক কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধান মোঃ আব্দুর রহমান অপু ও তার  সহযোগীসহ আটক-০২ 

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৪৯ জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক:-

বাংলাদেশ আমার অহংকার এই স্লোগান নিয়ে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জোড়ালো ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাব সৃষ্টিকাল থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, দুর্ধর্ষ চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার এবং বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদক উদ্ধারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

 

সারাদেশে কিশোর গ্যাং কালচার ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, যার মধ্যে ফেনী জেলা উল্লেখযোগ্য। বিভিন্ন ছত্রছায়ায় এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, চাঁদাবাজি, চুরি-ছিনতাই থেকে শুরু করে খুনাখুনিসহ নানা অপরাধে কিশোর-তরুনরা জড়িয়ে পড়ছে। মাদক ব্যবসা ও দখলবাজিতেও তাদের ব্যবহার করা হচ্ছে। নানা অপরাধে জড়িয়ে কিশোররা ক্রমেই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছে। ফেনী জেলার বিভিন্ন নামের কিশোর গ্যাং সদস্যদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম বিশেষ সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় দুষ্কৃতিকারী কিশোর গ্যাং সদস্যরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফেনী জেলার ফেনী রেলস্টেশনে ছিনতাইয়ের প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল গত ২৩ অক্টোবর ২০২৩ইং তারিখ আনুমানিক রাত ১৯৪৫ ঘটিকায় বর্ণিত রেলস্টেশনে অভিযান পরিচালনা করে “অপু গ্যাং” নামক কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধান ১। মোঃ আব্দুর রহমান অপু (১৮), পিতা- মোঃ সুলতান, সাং-সিংগাপাড়া, থানা- ভুরুঙ্গামারী, জেলা-কুড়িগ্রাম তার সহযোগী ২। কামরুল হাসান @ সজিব (১৮), পিতা- মিজানুর রহমান, সাং- মুন্সীরহাট, থানা- ফুলগাজী, জেলা-ফেনী এবং ৩। মোর্শেদ আলম সাইমু (১৮), পিতা- আনোয়ার হোসেন বাবলু, সাং-কদলগাজী, থানা ও জেলা- ফেনী’দেরকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিদের দেহ তল্লাশী করে তাদের নিজ হাতে বের করে দেয়া মতে ০১ টি ধারালো স্টীলের ফোল্ডিং চাকু এবং ০১টি ধারালো চাপাতি উদ্ধারসহ তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্থানীয় কথিত “অপু গ্যাং” নামক কিশোর গ্যাং এর হয়ে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছিল। জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, আসামিগণ ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফেনী রেলস্টেশনে একত্রিত হয়েছিল।

 

উল্লেখ্য, “অপু গ্যাং” কিশোর গ্যাং নামক এই গ্রুপটি সাধারণত ফেনী রেলস্টেশন, ফেনী শহর এলাকায় স্থানীয়ভাবে রাস্তায় সংঘবদ্ধ হয়ে মারামারি, ছিনতাই, চাঁদাবাজী ও এলাকায় প্রভাব বিস্তার করাসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত। এই কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা ফেনী জেলার রেল স্টেশন, বাসস্টান্ডসহ বিভিন্ন গলি ও রোডে ছিনতাই, চাঁদাবাজী, নিজেদের মধ্যে মারামারি, অন্য সাধারণ কিশোরদের মারধর ও প্রাননাশের হুমকী প্রদান, দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র প্রদর্শন এবং মাদক সেবন করে বলে জানা যায়। এছাড়াও তারা সাধারণ মানুষসহ দৈনন্দিন চলাচলরত বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষদের দেশীয় অস্ত্রের মুখে ভীতি প্রদর্শন এর মাধ্যমে মূল্যবান জিনিসপত্র, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন, নগদ টাকা ছিনতাই করে আসছিল বলে অকপটে স্বীকার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামি এবং উদ্ধারকৃত আলামত সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......