1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
শ্রীপুর পৌর ৬ নং ওয়ার্ড পূর্ব পাড়া গ্রামে মুরুব্বী,ছাত্র ও যুবকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে শেরপুরের শ্রীবরদীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় ধর্ষক গ্রেপ্তার জনাব আকবর আলী খান, পিপিএম, অফিসার ইনচার্জ, শ্রীপুর থানা। গাজীপুর জেলায় মার্চ/২০২৪ মাসের অপরাধ সভায় শ্রেষ্ট অফিসার নির্বাচিত হন। আমতলীতে ডায়রিয়ার প্রকোপ,হাসপাতালে তীব্র শয্যা সংকট র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে ১২ বছরের শিশু আজিম হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি রনি আক্তার ০৮ বছর পর  গ্রেফতার। শেরপুরের ভুয়া পুলিশ পরিচয়ে বিবাহ, অর্থ আত্মসাৎ প্রদানকারীর সহযোগী গ্রেপ্তার এশিয়ান টেলিভিশনের কুতুবদিয়া প্রতিনিধির উপর হামলা গোবিন্দগঞ্জে মাহবুর হত্যার আসামিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত বাগেরহাট কল্যাণ সোসাইটি’র ঈদ পূর্ণমিলনী সম্পন্ন জামিন চেয়ে আবারও আবেদনের প্রস্তুতি মিন্নি’র

বটিয়াঘাটায় তিন বিঘা আমন ধানের ফসল নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫০ জন দেখেছেন

মহিদুল ইসলাম (শাহীন) বটিয়াঘাটা খুলনা থেকে,

বটিয়াঘাটা উপজেলার সুরখালী ইউনিয়নের গজালিয়া মৌজায় এক কৃষকের জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে প্রায় ৪ বিঘা জমির চলতি আমন ধানের ফসল ক্ষতি সাধন করার অভিযোগ উঠেছে। এবিষয় বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর ২৩) ভুক্তভোগী কৃষক আমানুল্লাহ সরদার বাদী হয়ে বটিয়াঘাটা থানায় এক অভিযোগ দায়ের করেন।
ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার সুরখালী ইউনিয়ন গজালিয়ায় অবস্থিত জমাদ্দার ব্রিকস(জেবি) এর মালিকের ইন্দনে ইট ভাটার ম্যানেজার সিরাজুল ইসলাম ও মোঃ আসাদুল এর নেতৃত্বে ২০/২৫ জন দুষ্কৃতিকারীরা উক্ত কৃষকের জমিতে প্রবেশ করে। পরে জমিতে থাকা আমন ধানের পাতা কেটে পার্শ্ববর্তী খাল-বিল ও নদীতে ফেলে দেয়। কৃষক আফজাল সরদার বলেন, গাওঘরা এলাকার ওহিদ সরদার, সাইদ সরদার দের কাছ থেকে ৩ বছরের চুক্তিতে লীজ নিয়ে আমি ধান চাষ করে আসছি। সেই সুবাধে এই মৌসুমেও আমন ধান রোপন করি। কিন্ত মঙ্গলবার সকালে দুষ্কৃতিকারীরা জমিতে প্রবেশ করে ধানের গাছ কেটে নদীতে ফেলে দেয়। আমি এর ক্ষতি পুরন ও বিচার চাই। অভিযুক্ত আঃ লতিফ জমাদ্দার বলেন, এর সঙ্গে আমি সহ আমার ইট ভাটার কেউ জড়িত না। তিনি বলেন,জমির মালিক এবং বর্গাদারের সঙ্গে বনিবনাই হয়নি যে কারণে জমির মালিক একাজ করেছে। তিনি আরও বলেন,ওখানে আমাদের বিপক্ষের কিছু লোক আছে তারা কোন কিছু হলেই আমাদের গায়ে দোষ দেওয়ার চেষ্টা করে। স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রসাদ চন্দ্র রায় বলেন, এই কাচা ধান যেই কাটুক না কেনো তার দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি হওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, এই জেবি ইট ভাটার জন্য এলাকার অনেক ক্ষতি হচ্ছে। রাস্তা-ঘাট সব নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।
বটিয়াঘাটা উপজেলার উপ- সহকারী কৃষি অফিসার সরদার আব্দুল মান্নান বলেন, যেখানে সরকার কৃষকদের জন্য এত সুযোগ সুবিধা দিয়েছে সেখানে এভাবে একটা কৃষকের এতো বড় ক্ষতি করা উচিত হয়নি। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান তিনি।
বটিয়াঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মাদ শওকত কবির বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......