1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
শ্রীপুর পৌর ৬ নং ওয়ার্ড পূর্ব পাড়া গ্রামে মুরুব্বী,ছাত্র ও যুবকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে শেরপুরের শ্রীবরদীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় ধর্ষক গ্রেপ্তার জনাব আকবর আলী খান, পিপিএম, অফিসার ইনচার্জ, শ্রীপুর থানা। গাজীপুর জেলায় মার্চ/২০২৪ মাসের অপরাধ সভায় শ্রেষ্ট অফিসার নির্বাচিত হন। আমতলীতে ডায়রিয়ার প্রকোপ,হাসপাতালে তীব্র শয্যা সংকট র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম’র অভিযানে ১২ বছরের শিশু আজিম হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি রনি আক্তার ০৮ বছর পর  গ্রেফতার। শেরপুরের ভুয়া পুলিশ পরিচয়ে বিবাহ, অর্থ আত্মসাৎ প্রদানকারীর সহযোগী গ্রেপ্তার এশিয়ান টেলিভিশনের কুতুবদিয়া প্রতিনিধির উপর হামলা গোবিন্দগঞ্জে মাহবুর হত্যার আসামিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত বাগেরহাট কল্যাণ সোসাইটি’র ঈদ পূর্ণমিলনী সম্পন্ন জামিন চেয়ে আবারও আবেদনের প্রস্তুতি মিন্নি’র

ভূমিদস্যু কর্তৃক হিন্দু পরিবারকে পৈতৃক সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদের পায়তারা

  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ৩ আগস্ট, ২০২৩
  • ১১৭ জন দেখেছেন

ক্রাইম রিপোর্টার(চট্রগ্রাম)।

সম্প্রতি কক্সবাজার কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নে সন্ত্রাসি ভূমিদস্যু কর্তৃক এক অসহায় হিন্দু পরিবারকে বাড়িভিটা থেকে উচ্ছেদে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। উক্ত ঘটনায় হিন্দু পরিবারটির তিন নারীসহ ছয়জন মারাত্মক রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

 

গত ৫ জুলাই সকাল দশটায় শিবু দাশের বাড়ি সংলগ্ন পৈতৃক সম্পত্তিতে পরিবারের সদস্যরা চাষাবাদের জন্যে গেলে স্থানীয় ভূমিদস্যু আব্দুস সালাম তার সঙ্গীয় সন্ত্রাসি দলবলসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে হিন্দু পরিবারটির সদস্যদের এলোপাথাড়ি মারপিট এবং কোপাতে থাকে। এতে অঞ্জলী দাশ, কাজলী দাশ, সুমি দাশ সহ শিবু দাশ, চাদ কুমার দাশ এবং সুমন দাশ মারাত্মক রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হন। ঘটনায় শিবু দাশ বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন যার নং- ৬(৭)২০২৩ ধারা- ১৪৩/ ১৪৮/ ৩২৩/ ৩২৪/ ৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৫৪/৫০৬ দন্ডবিধি।

প্রত্যক্ষদর্শী এবং এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উক্ত আব্দুস সালাম স্থানীয় কুতুবদিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকের পাশাপাশি ভূমিদস্যু হিসাবে পরিচিত। তার নিয়ন্ত্রিত সন্ত্রাসি বাহিনি দিয়ে নিরীহ জনগনের ভূমি জবরদখল করলেও সন্ত্রাসি বাহিনির ভয়ে এলাকাবাসি তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে ভয় পায়। শিবু দাশের পিতা ক্যাশ কুমার প্রকাশ চাদ কুমার দাশের নামীয় বিএস ১৪৮৪ খতিয়ানের ১৫ শতক ভূমি স্ত্রী অঞ্জলী দাশকে দানপত্র মূলে হস্তান্তর করলে ভোগদখলে থাকাবস্থায় উক্ত ভূমিদস্যু আব্দুস সালাম জনৈক যুগেন্দ্র চন্দ্র ধুপীর নিকট থেকে এওয়াজমূলে প্রাপ্ত হয়েছেন বলে দাবী করে ভূক্তভোগী পরিবারটির সম্পত্তি দীর্ঘদিন থেকে জোরপূর্ব্বক জবরদখলের চেষ্টা করে আসছিলেন।

এ বিষয়ে ৫নং বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ভূমিদস্যু আব্দুস সালামের দাবীর স্বপক্ষে কোন দলিল পত্রাদি দেখাতে না পারায় এবং তর্কিত ভূমিতে যুগেন্দ্র চন্দ্র ধুপীর কোন প্রকার স্বত্ব স্বার্থ না থাকায় আব্দুস সালামকে অঞ্জলী দাশের সম্পত্তিতে গন্ডগোল না করার নির্দেশ দিয়ে চুড়ান্ত আদেশ দেন। অভিযুক্ত পক্ষ সামাজিক বিচার আচার এবং আইনের শাসনের তোয়াক্কা না করে গায়ের জোরে অসহায় হিন্দু পরিবারটিকে ভিটাছাড়া করার পায়তারা করছে। মামলা হলেও আসামীরা গ্রেপ্তার এড়িয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং পরিবারটিকে মামলা প্রত্যাহারের জন্যে প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে বলে ভূক্তভোগি পরিবারের অভিযোগ, স্থানীয় বাসিন্দা মাঞ্জুরা বেগম জানান-উক্ত আব্দুস সালাম তার সাত গন্ডা ভূমি জোরপূর্ব্বক দখলে নিয়ে পাকাবাড়ি নির্মান করেছেন। ভালো করে খোঁজ করলে আব্দুস সালামের দস্যুতার শিকার অনেক ভূক্তভোগি পরিবারের সন্ধান পাওয়া যাবে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে আব্দুস সালামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি নিজেকে নির্দোষ এবং তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবী করে যুগেন্দ্র চন্দ্র ধুপীর ওয়ারীশদের নিকট থেকে অতি সম্প্রতি নেয়া একখানা এওয়াজনামা দলিলের ফটোকপি প্রদর্শণ করেন।

এ বিষয়ে স্হানীয় ইউপি সদস্য মোঃ রেজাউল করিমের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান যে, গত ৫ জুলাই সকাল দশটায় শিবু দাশের বাড়ি সংলগ্ন পৈতৃক সম্পত্তিতে পরিবারের সদস্যরা চাষাবাদের জন্যে গেলে স্থানীয় ভূমিদস্যু আব্দুস সালাম তার সঙ্গীয় সন্ত্রাসি দলবলসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে হিন্দু পরিবারটির সদস্যদের এলোপাথাড়ি মারপিট এবং কোপাতে থাকে। এতে অঞ্জলী দাশ, কাজলী দাশ, সুমি দাশ সহ শিবু দাশ, চাদ কুমার দাশ এবং সুমন দাশ মারাত্মক রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হন।

উক্ত আব্দুস সালাম স্থানীয় কুতুবদিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকের পাশাপাশি ভূমিদস্যু হিসাবে পরিচিত। তার নিয়ন্ত্রিত সন্ত্রাসি বাহিনি দিয়ে নিরীহ জনগনের ভূমি জবরদখল করলেও সন্ত্রাসি বাহিনির ভয়ে এলাকাবাসি তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে ভয় পায়। শিবু দাশের পিতা ক্যাশ কুমার প্রকাশ চাদ কুমার দাশের নামীয় বিএস ১৪৮৪ খতিয়ানের ১৫ শতক ভূমি স্ত্রী অঞ্জলী দাশকে দানপত্র মূলে হস্তান্তর করলে ভোগদখলে থাকাবস্থায় উক্ত ভূমিদস্যু আব্দুস সালাম জনৈক যুগেন্দ্র চন্দ্র ধুপীর নিকট থেকে এওয়াজমূলে প্রাপ্ত হয়েছেন বলে দাবী করে ভূক্তভোগী পরিবারটির সম্পত্তি দীর্ঘদিন থেকে জোরপূর্ব্বক জবরদখলের চেষ্টা করে আসছিলেন। এ বিষয়ে ৫নং বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ভূমিদস্যু আব্দুস সালামের দাবীর স্বপক্ষে কোন দলিল পত্রাদি দেখাতে না পারায় এবং তর্কিত ভূমিতে যুগেন্দ্র চন্দ্র ধুপীর কোন প্রকার স্বত্ব স্বার্থ না থাকায় আব্দুস সালামকে অঞ্জলী দাশের সম্পত্তিতে গন্ডগোল না করার নির্দেশ দিয়ে চুড়ান্ত আদেশ দেন।

ভূমিদস্যু আব্দুস সালাম মাষ্টার এলাকার অনেকের জমি জোরজবর দখল করে পাকা বাড়ী পর্যন্ত তৈরী করেছেন।

এ বিষয় কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: মিজানুর রহমানের নিকট জানতে চাইলে, তিনি প্রতিবেদককে জানান “জমি জমার বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেয়ার ক্ষমতা বিজ্ঞ আদালতের। হামলার বিষয়ে সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে দেই, ঘটনার বিষয় প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বাদী শিবু দাশ এর অভিযোগ এজাহার হিসেবে গ্রহন করার পর আসামীদের গ্রেপ্তারে সর্বত্মক চেষ্টা চালাই। ইতিমধ্যে ৩ জন আসামী স্হানীয় আদালত থেকে জামিনে এবং ৩ জন আসামি মহামান্য হাইকোর্টের আদেশে মুক্ত আছে।

তিনি আরো জানান আমরা এখনও এম সি পাইনাই, এমসি হাতে পেলেই চার্জসিট দিয়ে দেব।

এলাকাবাসি উক্ত আব্দুস সালাম এবং তার সন্ত্রাসি দলের ভূমিদস্যুতা, জবরদখল এবং সন্ত্রাসি কর্মকান্ড থেকে অসহায় হিন্দু পরিবারটিকে রক্ষা করতে স্থানীয় প্রশাসন, মাননীয় ভূমিমন্ত্রী, মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

 

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......