1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলায় “যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত” আসামি মোঃ সুমন গ্রেফতার।  বাঘায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত এক ,গুরুতর আহত দুই। আমতলীতে হিরন হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন মৃধা গ্রেপ্তার  সাজেকে কাচালং নদীতে ফুল ভাসানোর মধ্য দিয়ে বিঝু উৎসবের সুচনা পুলিশি তৎপরতা ও আন্তরিক ভূমিকায় মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) মহিলার বাচ্চা প্রসবে সহযোগিতা । ভোটারদের টাকা দিতে বাঁধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে চেয়ারম্যান সমর্থককে হত্যা। শেরপুর পুলিশ লাইন্সে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত শিকড় ঝিনাইগাতীর উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সেবক, কামরুজ্জামান (বাবলু কেন্দ্রীয় কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপ-কমিটির (সদস্য) জামালপুরের সানন্দবাড়ীতে অসকস বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী উপহার হতদরিদ্রদের

বরগুনার বেতাগীতে লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারসহ ক্লু-লেস হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার – ০৩,

  • আপডেট সময়ঃ রবিবার, ২ জুলাই, ২০২৩
  • ৫৬ জন দেখেছেন

ডেক্স নিউজ:-গত ২৩ জুন,২০২৩ ইং দিবাগত রাতে বরগুনার বেতাগী উপজেলার মোকামিয়া ইউনিয়নের মাছুয়াখালী গ্রামে বিলকিস বেগম (৫৫) নামে এক মহিলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা পরবর্তীকালে ধর্ষন করা হয়। চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি), বরগুনার ওপর তদন্তের নির্দেশ আসলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ঘটনার রহস্য উন্মোচন করতে সক্ষম হয় পুলিশ। ঘটনাস্থলে গিয়ে সবকিছু তদন্ত করে দেখা যায়, রাতে ডাকাতি ও হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটলেও ভাড়াটিয়া আব্দুর রহমান জুয়েল ও তার পরিবার ঘুমিয়ে ছিল। এমন একটি ক্লুধরে জুয়েল ও তার স্ত্রীকে ডিবি কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এক পর্যায়ে আসামি জুয়েল বিলকিস বেগমকে হত্যা ও হত‍্যার পরে ধর্ষণের সব ঘটনা বলে দেয়।

 

বাড়িওয়ালার সম্পত্তি নিজের দখলে রেখে মালিক হওয়ার আশায় শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ধর্ষণ করেছেন ভাড়াটিয়া আব্দুর রহমান জুয়েল। তিনি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষক। একটি ক্লুলেস হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করতে গিয়ে বরগুনা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) হাতে উঠে এসেছে এমন নারকীয় তথ্য।

 

ঈদ উৎযাপন করার জন্য ঘটনার দু’দিন আগে ঢাকা থেকে নিজ গ্রামে আসেন নিহত বিলকিস বেগম। তার স্বামী আব্দুল মান্নান ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে চাকরিরত অবস্থায় ২০২০ সালে করোনায় মারা যায়। তার দুই ছেলেও ঢাকা সিটি কর্পোরেশনে চাকরি করে। ছেলে ও তাদের স্ত্রী এবং নাতিরা গ্রামের বাড়িতে যাবে বলে নিহত বিলকিস বেগম বাড়িঘর গোছাতে আগেই বাড়িতে আসেন।

 

বাড়ি এসে বাড়িঘর নোংরা করে রাখায় ভাড়াটিয়া ও বাড়ি দেখাশোনা করার দ্বায়িত্বে থাকা মোকামিয়া মাদরাসার শিক্ষক আব্দুর রহমান জুয়েলের (৩৩) সঙ্গে কথা কাটাকাটি ও ঝগড়া হয়। বিষয়টি আব্দুর রহমান তার প্রতিবেশী নির্মাণ শ্রমিক হিরুকে (৩৮) জানায় এবং বলে ‘প্রতিবার ঢাকা থেকে এসে ঝগড়াঝাটি করবে তা আর ভালো লাগে না’। তখন হিরু বলে ওপরে পাঠিয়ে দাও। মহিলা মরলে জমিজমা তোমার হয়ে যাবে। তার ছেলেরা ঢাকায় থাকে, চাকরি করে। চাকরি ছেড়ে তারা আর জমিজমা জন্য গ্রামে আসবে না। এই জমিজমা তোমার হয়ে যাবে।

তখনই তারা বিলকিস বেগমকে হত্যার পরিকল্পনা নেয়। হত্যা শেষে বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে বলে প্রচার করে দেবে যাতে তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাবে। এই কিলিং মিশন সফল করতে তারা তাদের ঘনিষ্ঠজন স্থানীয় মুদি দোকানদার মাসুদ মিয়ার সঙ্গে শেয়ার করে। পরিকল্পনায় তারা মোবাইল ট্রাকিংয়ের ফাঁদে যাতে না পড়ে তাই বিলকিস বেগমের বাড়ির উঠনে টিউবয়েলে কয়েকটি চাপ দিলে তাদের উপস্থিতি সংকেত নিশ্চিত হবে।

 

মধ্যরাতে হিরু এসে টিউবয়েলে জোরে জোরে কয়েকটি চাপদিলে জুয়েল দরজা খুলে হিরুকে নিয়ে প্রবেশ করে এবং বাইরে পাহাড়াদার হিসেবে মাসুদ অবস্থান করে। ঘরের মধ্যে ঢুকে জুয়েল বিলকিস বেগমের বুকের উপরে উঠে গলাটিপে ধরে আর হিরু পা চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যা নিশ্চিত করে। কিলিং মিশন শেষে ঘরের মালপত্র তচনছ করে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে এবং জানালার গ্রীল কেটে মেঝেতে রাখে যাতে সবাই বুঝতে পারে বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। হিরু চলে যাওয়ার পর জুয়েল পুনরায় বিলকিস বেগমের ঘরে ঢুকে এবং মৃত বিলকিস বেগমকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ করার পর বিলকিস বেগমের মরদেহের ওপর আঘাত করে, যাতে পুলিশ বুঝতে পারে ডাকাতরা বিলকিস বেগমকে মারধর ও ধর্ষণ করেছে।

 

এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। হত্যাকাণ্ডটি ডাকাতির নাটকে পরিনত করতে চাইলে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি), বরগুনা মামলাটির তদন্ত করে হত্যার রহস্য ও সত্যতা বের করে আনে।

গ্রেফতারকৃত আসামি হিরুর বক্তব্য মতে মঙ্গলবার দিন রাতে অভিযান চালিয়ে মাসুদকে গ্রেফতারের সময় মাসুদের ট্রাংক থেকে বিলকিস বেগমের কানের দুল জব্দ করে। আসামী হিরু ও মাসুদের চিফ জুডিসিয়াল আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি শেষে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......