1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলায় “যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত” আসামি মোঃ সুমন গ্রেফতার।  বাঘায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত এক ,গুরুতর আহত দুই। আমতলীতে হিরন হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন মৃধা গ্রেপ্তার  সাজেকে কাচালং নদীতে ফুল ভাসানোর মধ্য দিয়ে বিঝু উৎসবের সুচনা পুলিশি তৎপরতা ও আন্তরিক ভূমিকায় মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) মহিলার বাচ্চা প্রসবে সহযোগিতা । ভোটারদের টাকা দিতে বাঁধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে চেয়ারম্যান সমর্থককে হত্যা। শেরপুর পুলিশ লাইন্সে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত শিকড় ঝিনাইগাতীর উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সেবক, কামরুজ্জামান (বাবলু কেন্দ্রীয় কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপ-কমিটির (সদস্য) জামালপুরের সানন্দবাড়ীতে অসকস বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী উপহার হতদরিদ্রদের

রংপুরে দিনে দুপুরে দোকানের তালা ভেঙ্গে লুটপাটের অভিযোগ

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ২৪ মার্চ, ২০২৩
  • ৪১ জন দেখেছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ রংপুরের  মিঠাপুকুর উপজেলার শুকুরেরহাট বাজারে দিনে দুপুরে দোকানের তালা ভেঙ্গে  লুটপাটের অভিযোগে উঠেছে।

 

অভিযোগ সুত্রে জানা যায় আলমগীর হোসেন (৪৫) পিতা সেকেন্দার আলী ও তহমিনা বেগম (৪০) স্বামী-আলমগীর হোসেন। উভয়েরি বাসা বুজরুক সন্তোষপুর শ্রীপুর  ইউনিয়ন বালুয়া মাসিমপুর। বর্তমান মিঠাপুকুর উপজেলার তনকা মামুদপুরে থাকেন।

 

বুধবার (২২ মার্চ ২৩) সন্ধ্যার দিকে সরজমিনে গেলে জানা যায়, অভিযোগকারী সেলিম মিয়া গত ৩-৪ বছর ধরে মেসার্স সেলিম টেলিকম নামের প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করে আসছেন। প্রতিদিনের ন্যায় সেলিম মিয়া দুপুরে বাসায় ভাত খেতে গেলে। গত ২০ মার্চ সোমবার দুপুর ২টার দিকে পরিকল্পিত ভাবে আলমগীর হোসেন ও তহমিনা বেগমসহ অজ্ঞাত প্রায় ১০-১২ জন ব্যক্তি হাতে লাঠি, ধারালো ছোড়া, রড, শাবল, তীর ধনুক, বল্লম নিয়ে জনগণের চলাচল বন্ধ করে সেলিম মিয়ার দোকানের তালা ভেঙ্গে অনুপ্রবেশ করে আলমগীর হোসেন নগদ ছয় লক্ষ টাকা, পঞ্চাশ হাজার টাকার রিচার্জ কার্ড, আইটেল কোম্পানির অ্যান্ড্রয়েড ও বাটন ফোন তহমিনা বেগমসহ অজ্ঞাত ব্যক্তিরা আইটেল নিয়ে যায়।

 

এব্যাপারে ভুক্তভোগী সেলিম মিয়া বলেন,  আমি ব্যবসা করি সব ধরনের ব্যাগ পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় করি। একই সঙ্গে মোবাইল, মোবাইলে যন্ত্রাংশ, বিকাশ, নগদ, উপায় ও রকেট মোবাইল এজেন্ট ব্যাংকিং এর ব্যবসা করি। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আলমগীর হোসেন ও তহমিনা বেগম তাদের লোকজনদেরকে নিয়ে দিনে দুপুরে আমার দোকানের তালা ভেঙ্গে প্রবেশ করে নগদ ছয় লক্ষ টাকা, রিচার্ড কার্ড পঞ্চাশ হাজার, অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ও বাটন ফোন দুই লক্ষ টাকার নিয়ে গেছে। আমাকে পাশের দোকানদার ফোন করে বলে আমার দোকানে আলমগীর হোসেন ও তহমিনা বেগমসহ তাদের লোকজন লাঠি সোটা, ছোড়া, তীর ধনুক, বল্লম, নিয়ে এসে তালা ভেঙ্গে দোকানে প্রবেশ করে সবকিছু নিয়ে চলে গেছে। আমি বাড়ি থেকে দোকানে এসে দেখি এবং বাজারে প্রত্যক্ষভাবে দেখেছে রিপন মিয়া, হাসানুর মিয়া, সাইদুল মিয়া কাছ থেকে ঘটনার বিষয় শুনি। তারপর বিভিন্ন মোবাইল থেকে এবং লোকজন মারফতে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। এজন্য আমি থানায় গিয়ে আমার ব্যবসার ক্ষতিপূরণ ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে মিঠাপুকুর থানার তদন্ত অফিসার মোঃ নূর আলম বলেন, এসআই ফজলু সাহেব তদন্তে গিয়েছিল। ওনার  সাথে কথা বলে জানতে পারি লাঠি, সোটা, দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কয়েকজন সেখানে গিয়ে দোকানের তালা ভেঙ্গে ফেলে।  লুটপাটসহ অন্যান্য ঘটনা ঘটেছে কিনা সেটার তদন্ত চলমান রয়েছে। ঘটনাটির সত্যতা পাওয়া গেলে মামলা রুজু হবে##

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......