1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
বাংলাদেশ সাংবাদিক ক্লাব, কেন্দ্রীয় স্হায়ী কমিটির পক্ষে,শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন।  অমর একুশে ফেব্রুয়ারি “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস” উপলক্ষে গড়গড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি। রাজশাহীর বাঘায় যথাযথ মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। যোগ্য ও দক্ষতার সাথে খোকা নতুন লুকে টেলিভিশনের পর্দায় আসার সম্ভাবনা। ঝিনাইগাতী শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন আমতলীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি, বাঘায় রুকুনুজ্জামান রিন্টু ভালুকায় একুশে প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদের প্রতি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি’র শ্রদ্ধা- কালাইয়ে মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

*চাঞ্চল্যকর “দুলাল শেখ” হত্যা মামলার মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক প্রধান আসামী গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬।*

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ, ২০২৩
  • ৫৫ জন দেখেছেন

ফিরোজ মাহমুদ স্টাফ রিপোর্টার (খুলনা) :-গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর থানাধীন তাড়ীহাটি গ্রামের নিখোজ ব্যবসায়ী দুলাল শেখ মামলার আসামী রাবের জ্বালে গ্রেফতার। মামলার বিবরণ এ যানা যায়, দুলাল শেখের মোবাইলে ফোন বন্ধ পাওয়াতে পরিবারের সন্দেহ বাড়তে শুরু করে। পরের দিন ০৩ জুন ২০১২ তারিখ সকালে ভিকটিমের পরিবার লোকমুখে সংবাদ প্রাপ্ত হয়ে পার্শ্ববর্তী গোহালা নদীর তীরে ভিকটিমের পরিহিত রক্তমাখা সেন্ডেল ও চশমাসহ অন্যান্য আনুষাঙ্গিক মালামাল দেখতে পায়। নদীতে নেমে খোঁজাখুজির একপর্যায় ভিকটিমের মৃতদেহ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়। ভিকটিমের পরিবার বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পারে জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে আসামী ফক্কার শেখ ওরফে ফারুক শেখসহ তার সহযোগীরা ভিকটিমের মাথায়, গলায়, কোমড়, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে হত্যা করে মৃতদেহ নির্জন স্থানে নদীতে ফেলে দেয়। এ সংক্রান্তে ভিকটিমের স্ত্রী বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। বিষয়টি তখন বিভিন্ন মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয় এবং জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। উক্ত মামলার বিচারকার্য শেষে ঘটনার সত্যতা প্রমানিত হওয়ায় বিজ্ঞ আদালত গত ২৬ অক্টোবর ২০২১ তারিখ প্রধান আসামী ফক্কার শেখ ওরফে ফারুক শেখসহ ০৫ আসামীকে মৃত্যুদন্ডসহ প্রত্যেককে ৫০,০০০/-(পঞ্চাশ হাজার) টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন। আসামীরা আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়ায়। মামলার রায় হওয়ার পর থেকেই র‌্যাব-৬ খুলনার একটি গোয়েন্দা দল পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত রাখে।

 

১১ মার্চ ২০২৩ তারিখ র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) খুলনার একটি চৌকস আভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, ব্যবসায়ী দুলাল শেখ হত্যা মামলার দীর্ঘদিন যাবত পলাতক মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত প্রধান আসামী ফক্কার শেখ ওরফে ফারুক শেখ কিছুদিন পূর্বে বাংলাদেশে এসেছে এবং বর্তমানে ঢাকা জেলার সাভার থানা এলাকায় আত্নগোপনে আছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে আভিযানিক দলটি একই তারিখ রাতে ঢাকা জেলার সাভার থানাধীন হেমায়েতপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত প্রধান পলাতক আসামী ফক্কার শেখ ওরফে ফারুক শেখ(৪০), থানা-মুকসুদপুর, জেলা-গোপালগঞ্জকে গ্রেফতার করেন।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীকে গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......