1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
খুলনা বটিয়াঘাটা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন জমে উঠেছে,চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে রাহুল,শিমু,মিলন ও নিতাই মধ্যে। বদলগাছী উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়নের ২৪ ও ২৫ অর্থ বছরের প্রায় সাড়ে ৪ কুঠি টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা করেন চেয়ারম্যান । ঝিনাইগাতীতে আদিবাসী শিশু ধর্ষণের দায়ে গ্রেপ্তার-১ মহাসড়কে অপরিকল্পিত ব্রিজ ভোগান্তির শেষ নেই লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষের সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবি ও চাঁদা আদায়সহ নগ্ন ভিডিও ধারণের ঘটনায় ভুয়া সাংবাদিকসহ গ্রেফতার-০৩ চট্টগ্রামে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’মোকাবেলায় বিভিন্ন কর্মসূচির তৎপরতায় মেট্রোপলিটন পুলিশ বাবাকে পিটিয়ে পঙ্গু করার অভিযোগ উঠেছে ছেলে এবং পুত্র বধুর বিরুদ্ধে গভীর নলকূপের ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অজ্ঞাত এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাকিল হোসেন গ্রেফতার।  ঘূর্ণিঝড় রেমালে বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা অ্যালার্ট-৪ জারি

দক্ষিন বন্দর সেন্টার মোড়ে ব্যাটারি চালিত রিকশায় লক্ষ লক্ষ টাকার টোকেন বাণিজ্য, নিত্যৃ যানজট

  • আপডেট সময়ঃ বুধবার, ১ মার্চ, ২০২৩
  • ২৭ জন দেখেছেন

এস এম  মঈনউদ্দীন, আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা :: কর্ণফুলী দক্ষিন বন্দর সেন্টার মোড়ে প্রধান সড়কের উপর অটোরিকশার স্ট্যান্ড করে নিত্য যানজট সৃষ্টি করে চলছে একটি সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেটটি টোকেন বাণিজ্য করে প্রতি মাসে কামিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। নিষিদ্ধ এসব ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা গুলো প্রতি মাসে ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা দিয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে সেন্টার মূল সড়কের উপর নিত্য যানজট সৃষ্টি করলেও রাজনৈতিক, জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের লোকজন চোখে দেখলেও না দেখার ভান করে চলে যায়। এই অবস্থা চলতে থাকে মাসের পর মাস।

কেইপিজেড ছুটি হলে সৃষ্টি হয় অসহনীয় যানজট। আনোয়ারা ও কর্ণফুলী রাঙ্গাদিয়া পুলিশ ফাঁড়িকে ম্যানেজ করে সড়কের উপর দিব্যি দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে নিষিদ্ধ এসব ব্যাটারি চালিত রিকশা। এসব রিকশা চালাচ্ছে অনেকেই  অনভিজ্ঞ ছোট ছোট কিশোর। চালকের আসনে যারা তারা বেশিরভাগেরই দ্রুতগতি সম্পন্ন ব্যাটারিচালিত রিকশা চালানোর কোনো পূর্ব অভিজ্ঞাতা বা প্রশিক্ষণ নেই। এছাড়া ট্রাফিক আইন সম্পর্কে ন্যূনতম ধারণা না থাকায় এসব চালকরা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছে প্রতিনিয়ত। তাছাড়া বাড়ছে যানজটও। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ না নেয়ায় বৈধ চেয়ে অবৈধ রিক্সার আদিক্য দিনদিন বেড়েই চলেছে। অন্যদিকে বাড়ছে দুর্ঘটনার হারও। এই রিক্সাগুলোকে কেন্দ্র করে টোকেন বাণিজ্যে চাঁদাবাজি হচ্ছে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকার। এসব রিকশা হতে আনোয়ারা রাঙ্গাদিয়া পুলিশ ফাঁড়ি ও কর্ণফুলী পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জের বিরুদ্ধে টোকেন বাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। রিকশাগুলো থেকে টোকেন বিক্রি করে টাকা তুলে দিতে সিইউএফএল রাস্তার মাথায় ১জন, ১৫নং ঘাটে ১জন, সেন্টারে ২জন ক্যাশিয়ার রয়েছে বলে জানান রিকশা চালকরা। এব্যাপারে আনোয়ারা রাঙ্গাদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো: সোহরাওয়ার্দী সরওয়ার জানান, টোকেন বাণিজ্য সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই এবং অটো চালকরা আমি টাকা নেই যদি তথ্য দেয় তাহা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এব্যাপারে কর্ণফুলী পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ রেজাউল জানান, আপনি আরো খোঁজখবর নেন কে নেয় সঠিক তথ্য আমাদের জানালে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো বলে জানান। প্রশাসন বরাবরের মতোই টোকেন বাণিজ্য অস্বীকার করেছে। এসব অবৈধ রিকশাগুলো রাস্তার উপর স্ট্যান্ড করে যানজট সৃষ্টি করলেও এগুলোর বিরুদ্ধে কোনো অভিযান পরিচালনা হচ্ছে না কেন তাহার কোন সদুত্তর দিতে পারেন নাই

পুলিশ প্রশাসন। এ ব্যাপারে আনোয়ারা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আব্দুল নূর চৌধূরী জানান, যেহেতু রিকসা চালকরা অনেকেই গরীব মানুষ তাদের কথা চিন্তা করে মূল সড়ক মোহছেন আউলিয়া রাস্তা ও সিইউএফএল সড়কের উপর স্ট্যান্ড না করে সিইউএফএল রাস্তার একপাশে করে সাড়ি বদ্ধভাবে দাঁড়ালে যানজট সৃষ্টি হতো না বলে তিনি মনে করেন। সেন্টার মোড়টা যানজট মুক্ত করতে সিইউএফএল প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনসহ জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করার দাবী জানান তিনি।

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......