1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামি মোঃ রায়হান’কে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-১১। সীতাকুণ্ডে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ যানজট সৈনিক কল্যাণ সংস্থা Uno নিকট খেজুরের বীজ প্রদান বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মাস ব‍্যাপি সাংগঠনিক কর্মসূচি 2024 সম্পন্ন। বরগুনার তালতলীতে অবৈধ চোলাই মদসহ আটক ১ জন। “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়”– “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়” শেরপুরের ঝিনাইগাতী তিনজন হোটেল মালিককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা ২ কেজি গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী বরগুনা ডিবি পুলিশের হাতে আটক।

খুলনার মেডিকেল এসোসিয়েশন সদস্য ডাঃ নিশাতের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবিতে কর্ম বিরতী পালন

  • আপডেট সময়ঃ বুধবার, ১ মার্চ, ২০২৩
  • ৩৫ জন দেখেছেন

মহিদুল ইসলাম (শাহীন) বটিয়াঘাটা :ডা.শেখ নিশাত আব্দুল্লাহের উপর সন্ত্রাসী হামলা গত ২৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার মহানগরীর সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এজাহার দায়ের করেছেন । এজাহার সূত্রে জানা যায়, ডাঃ নিশাত আব্দুল্লাহ গুরুত্বর অসুস্থ ও চিকিৎসাধীন থাকায় তার পক্ষে মেডিক্যাল এসোসিয়েসন, খুলনা শাখার কার্যকরী পরিষদ সদস্য ডা. মোঃ মেহেদী হাসান সৈকতের মাধ্যমে থানায় হাজির হয়ে এজাহার দায়ের করেছেন যে, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি শনিবার ৮ ঘটিকায় সময় থেকে নগরীরর শেখ পাড়াস্থ হক নার্সিং হোমে একজন রোগীর সার্ভারী কাজে ডাঃ নিশাত ব্যস্ত ছিল । অপারেশনে নিশাতের সাথে নার্স  নমিতা, অপারেশন এটেনডেন্ট সাজেদা হোসেন, মোঃ নাজমুল হককে সাথে নিয়ে অপারেশন করতে ছিল । অনুমান রাত ১০ টায় সময় সাতক্ষীরা

পুলিশ বিভাগে কর্মরত এ এস আই নাঈম যার ঠিকানা মোড়েলগঞ্জ, বাগেরহাট ও তার স্ত্রী এবং সঙ্গীয় ৪/৫ জন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক নিয়া  অপারেশন থিয়েটারের দরজায় লাথি মারতে শুরু করে এবং অকথ্য ভাষায় গালাগালি করতে থাকে। কারন জানতে জিজ্ঞাস করলে বলে আমার মেয়ে অথৈ (৭) কে তুই এক মাস আগে আঙ্গুল অপারেশন করেছিল আমার মেয়ের আঙ্গুল

ভাল হয় নাই। এর জন্য তুই দায়ী এখনই (দশ লক্ষ টাকা) আমার মেয়ের ক্ষতিপূরন দিবি। তোকে আজ ডাক্তারীর শখ মিটিয়ে দেবো। এই কথা বলার সাথে সাথে এএসআই নাঈম ডাঃ নিশাতের উপর ঝাপিয়ে পড়ে কিল ঘুষি লাথি মারতে থাকে। ওই সময় তার স্ত্রী ও সঙ্গীয়রা ডাক্তারকে ঘিরে রাখে। এক পর্যায়ে এএসআই নাঈম গলা টিপে ধরে নিশাতের শ্বাস রোধ করার চেষ্টা করতে থাকে। এ সময় তার স্ত্রী ও দুহাত চেপে ধরে এবং অন্য অজ্ঞাত নামারা ডাক্তারকে মারপিট করতে থাকে এবং তারা ক্লিনিকের ওটিতে ভাংচুর চালায়। এক পর্যায়ে ডাক্তারের সাথে থাকা নার্স অন্যান্য সহযোগীরা এবং ক্লিনিকের মালিক ডা. নুরুল

হক ফকির দৌড়ে এসে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে। তিনি শারিরিক ভাবে অসুস্থ্যতার কারনে বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। আসামীরা ডাঃ নিশাত কে জীবন নাশের হুমুকি দিয়ে বলেছে তারা জীবনে মেরে ফেলবে। এতে নিশাত ও তার পরিবার  জীবন নিয়ে ভীতির মধ্যে রয়েছে । ডাঃ নিশাত অসুস্থ্য থাকার কারনে ডা. মোঃ মেহেদী হাসান সৈকতের মাধ্যমে এজাহারটি থানায় প্রেরন করছেন। অন্যদিকে ডাঃ শেখ নিশাত আবদুল্লাহ মারপিটের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ দাবিতে গতকাল বুধবার বটিয়াঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত সকল চিকিৎসকরা প্রতিবাদ স্বরূপ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সকল সেবা সাময়িক ভাবে বন্ধ করেছেন। বটিয়াঘাটায় কর্মরত সাংবাদিক মহিদুল ইসলাম শাহীন, ইমরান হোসেন সুমন, আরিফুজ্জামান দুলু সঙ্গে একান্ত আলাপ কালে বটিয়াঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ মিজানুর রহমান বলেন, ডাঃ নিশাতের উপর হামলার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে খুলনা জেলার সকল সরকারি, বেসরকারী ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে বুধবার সারাদিন এই কর্ম বিরতি। তার ধারা বাহিকতায় বটিয়াঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এই বিরতি পালিত হয়। অন্য দিকে হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে খুলনা মেডিকেলের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......