1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
গভীর নলকূপের ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অজ্ঞাত এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাকিল হোসেন গ্রেফতার।  ঘূর্ণিঝড় রেমালে বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা অ্যালার্ট-৪ জারি চট্টগ্রামে স্মরণ সভা ইরানের নিরাপত্তা আরো জোরদার করা প্রয়োজন – নিজামী কালাই এ জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ উদ্বোধন হারুন অর রশিদ রিমেলের তান্ডবে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে আমতলীর নিম্নাঞ্চল  ইমাম ও মুয়াজ্জিন নিয়োগ নিয়ে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রকাশ করা কে এই আবদুর রহমান? আমতলীতে ‘রেমাল’ মোকাবেলায় জরুরী সভা, প্রস্তুত ১১১ সাইক্লোন শেল্টার তেতুলিয়ায় উপজেলা নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সৌন্দর্য বর্ধক বাঁশঝাড় উধাও ময়মনসিংহের ফুলপুরে দুস্থ অসহায় ৪২৬০জন পেলেন ভিজিএফ কার্ড

র‍্যাব-৭’র অভিযানে ১৫ বছর ধরে পলাতক আসামী ও শীর্ষ সন্ত্রাসী সোহেল মিয়া আটক।

  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৮৯ জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ আমার অহংকার এই স্লোগান নিয়ে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জোরালো ভূমিকা পালন করে আসছে। র‍্যাব সৃষ্টিকাল থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, দুর্ধষ চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার এবং বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদক উদ্ধারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

ধর্ষিতা ভিকটিম ১৫ বছর বয়সের এবং কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর এলাকায় বসবাস করত। ভিকটিমের এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী মোঃ সোহেল মিয়া ভিকটিমকে প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিত এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের সম্পর্ক করতে চাইত। ভিকটিম রাজী না হওয়ায় গত ১৩ মার্চ ২০০৮ইং সালে সোহেল মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরবতর্ী আহত ভিকটিমকে ফেলে রেখে সোহেল মিয়া পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ভিকটিম কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নং ০৭(৩) /০৮, জিআর নং ১২৮ (০২)০৮, ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) এর ধারা ৯(১)।

 

বর্ণিত মামলাটি রুজু হওয়ার পর থেকে উক্ত মামলার এজাহারনামীয় আসামীরা আইন শৃংখলা বাহিনীর নিকট হতে গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে পলাতক থাকে এবং সর্বশেষ চট্টগ্রাম এসে নিজেকে আত্মগোপন করে। গত ১৫ মার্চ ২০২১ তারিখে বর্ণিত মামলায় আসামী মোঃ সোহেল মিয়াকে বিজ্ঞ আদালত যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করে এবং তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পয়োয়ানা জারী করে।

 

র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে বর্ণিত ধর্ষণ মামলার ১৫ বছর ধরে পলাতক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পরওয়ানাভুক্ত পলাতক আসামী চট্টগ্রাম মহানগরীর পাহাড়তলী এলাকায় আত্মগোপন করে রয়েছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল গত ১৮ জানুয়ারি ২০২৩ ইং তারিখ রাত আনুমানিক ২০৩০ ঘটিকায় উক্ত মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পরওয়ানাভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ সোহেল মিয়া (২৫), পিতা-মৃত আইনব আলী, সাং-খিলেরবন্ধ, থানা-কুলিয়ারচর, জেলা-কিশোরগঞ্জ‘কে চট্টগ্রাম মহনগরীর পাহাড়তলী থানাধীন দক্ষিন কাট্টলি এলাকা হতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী বর্ণিত মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পরওয়ানাভুক্ত পলাতক আসামী বলে স্বীকার করে।

 

গ্রেফতারকৃত আসামী সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......