1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
বাংলাদেশ সাংবাদিক ক্লাব, কেন্দ্রীয় স্হায়ী কমিটির পক্ষে,শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন।  অমর একুশে ফেব্রুয়ারি “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস” উপলক্ষে গড়গড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি। রাজশাহীর বাঘায় যথাযথ মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। যোগ্য ও দক্ষতার সাথে খোকা নতুন লুকে টেলিভিশনের পর্দায় আসার সম্ভাবনা। ঝিনাইগাতী শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন আমতলীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি, বাঘায় রুকুনুজ্জামান রিন্টু ভালুকায় একুশে প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদের প্রতি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি’র শ্রদ্ধা- কালাইয়ে মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

শরীয়তপুর -জাজিরায় ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে প্রেমিকার অনশন।

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৩২ জন দেখেছেন

রিপোর্টঃ শরীয়তপুর প্রতিনিধি মোঃ ওবায়েদুর রহমান সাইদ। শরীয়তপুরের জাজিরায় বিয়ের দাবিতে বিকেনগর বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগের একাংশের সভাপতি সুমন মাদবর (২৮) বাড়িতে তার প্রেমিকা অনশনে। শুক্রবার (৬জানুয়ারি) সকাল থেকে উপজেলার বিকেনগর  ইউনিয়নের ছোবাহান্দি গ্রামের আলতাফ মাদবরের ছেলে সুমন মাদবরের বাড়িতে অনশনে অবস্থান নেয় ওই তরুণী।তরুণী তৃষা মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার কাঠালবাড়ি ইউনিয়নের ফকির কান্দি গ্রামের বাসিন্দা মো.মোনসের খাঁর মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ২ বছর আগে প্রেমিক বিকেনগর বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগের একাংশের সভাপতি সুমন মাদবরের সঙ্গে তৃষার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই সুবাদে প্রেমিক সুমন মাদবর ঐ তরুণীর বাড়িতে কয়েকবার বেড়াতেও গিয়েছিল। পরে ওই তরুণীর বাবা-মাকে বিয়ের আশ্বাস দেন, এক পর্যায়ে বিয়ের কথা বলতেই প্রেমিক বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে। পরে ওই তরুণী কোনো উপায় না পেয়ে শুক্রবার থেকে সুমনের বাড়িতে এসে অনশন শুরু করে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।তরুণী তৃষা বলেন, দীর্ঘ ২ বছর ধরে আমাদের দুজনের প্রেমের সম্পর্ক। আমার পরিবার ও সমাজের সবাই জানে সুমনের সঙ্গে আমার বিয়ে ঠিক। আমার সাথে একাধিক বার শারীরিক সম্পর্ক ও হয়েছে। সুমন আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এখন বিয়ে করছে না। বাড়িতে ফিরে যাওয়ার কোনো পথ নেই আমার। বিয়ে না করা পর্যন্ত আমি অনশন চালিয়ে যাবো।

জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ কামরুল হাসান সোহেল জানান, আমরা খবরটি পেয়েছি এবং বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......