1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
শেখ ফজলুল হক মনি স্মৃতি সংসদ কর্তৃক আয়োজিত পিকনিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংসদ গোলাম সরোয়ার টুকু’র শুভেচ্ছা বিনিময় চট্টগ্রামে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলাম কে অ্যাম্বুলেন্স প্রদানে পিএইচপি ফ্যামিলি আমতলী পৌরসভা নির্বাচনে প্রতিক বরাদ্দ। বঙ্গলতলি বোধিপুর বন বিহারে ১০তম মহা সংঘদান উদযাপন শেরপুরে অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার “পরিমার্জিত কারিকলম দক্ষতা অর্জনে শিক্ষক প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই”-আদর্শ শিক্ষক ফোরামের শিক্ষক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন- জাতীয় দৈনিক সমকালে ‘বড় বোঝা হৃদয়ের ছোট্ট কাঁধে’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ ,পেলেন ভ্যানগাড়ী।। আমতলীতে গরুসহ চোর গ্রেপ্তার সিএমপি, পুলিশ কমিশনার মহোদয়ের ইপিজেড থানার দ্বিবার্ষিক পরিদর্শন সম্পন্ন।

সমন্বয়হীনতার অভাবে ভেঙ্গে পড়েছে শরীয়তপুর হাসপাতালের প্রশাসনিক ব্যবস্থা।

  • আপডেট সময়ঃ সোমবার, ২ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৪৩ জন দেখেছেন

রিপোর্টঃ শরীয়তপুর প্রতিনিধি,মোঃ ওবায়েদুর রহমান সাইদ। 

শরীয়তপুর সদর আধুনিক হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবহান এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন কুমার পোদ্দারের সাথে সমন্বয়হীনতার অভাবে হাসপাতালে প্রশাসনিক ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে।যার কারণে হাসপাতালের চিকিৎসকরা নিয়মিত সঠিক সময়ে হাসপাতালে আসছেন না। ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসা ব্যবস্থা।

সকাল শোয়া নয়টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের অনেক চিকিৎসকের চেম্বারই বন্ধ রয়েছে। দূর দূরান্ত থেকে আসা রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাওয়ার জন্য চেম্বারের সামনে ভীর করে আছে। ডাঃ আকরাম এলাহীর চেম্বারের সামনে অনেক রোগীর ভীর থাকলেও তাকে সকাল এগারোটা পর্যন্ত চেম্বারে পাওয়া যায়নি।

এদিকে হাসপাতালের প্রশাসনিক বিভিন্ন কার্যক্রম এবং ডিজিটাল মেলাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবহান এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন কুমার পোদ্দারের সাথে সমন্বয়হীনতা দেখা দিয়েছে। উভয়ের মধ্যে স্নায়ুযুদ্ধ চলছে। কেউ কাউকে মানছে না। অহেতুক একে অপরকে দোষারোপ করছে। যার প্রেক্ষিতে যে কোন সময়ে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আশংকা রয়েছে।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের প্রধান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক মোঃ বজলুর রশিদের সাথে আলাপ কালে তিনি দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান নিউজকে বলেন, তত্ত্বাবধায়ক স্যার আমাদের কারো কথা শোনেন না। সকল ব্যাপারে তিনি একাই সিদ্ধান্ত নেন। বর্তমানে আর এম ও স্যারের সাথে সম্পর্ক খারাপ যাচ্ছে। তত্ত্বাবধায়ক স্যারের খামখেয়ালীর কারণে হাসপাতালের অন্যান্য স্টাফরা আন্দোলন করতে পারে বলে আমি আশংকা করছি।

এ ব্যাপারে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন কুমার পোদ্দারের সাথে আলাপ করতে গেলে তিনি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবহানের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সরকারী ভাবে ডিজিটাল মেলা উদযাপনের জন্য তার কাছে চিঠি এসেছে। সেই চিঠির খবর আমাদের কাউকে কিছু জানায়নি। সব তার পেটে পেটে রেখেছে। তারপরও আমার স্টাফদের নিয়ে আমি ডিজিটাল মেলার র্যালীতে এ্যাটেন্ট করেছি। এরপরও আমাকেই দোষারোপ করছে। হাসপাতালের কোন ব্যাপারে কোন সিন্ধান্ত হলে তা আমাকে জানান না। তিনি একা একাই সিদ্ধান্ত নেন। হাসপাতালের কোন চিকিৎসক কিংবা কোন স্টাফ ছুটিতে গেলে তিনি আমাকে জানান না। মোট কথা আমাকে না জানিয়েই সকল কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবহানের সাথে আলাপ করতে গেলে তাকে হাসপাতালে পাওয়া যায়নি। পরে তার মুঠোফোনে কল দিলে মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। যার কারণে তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......