1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও কুরবানীর সমস্ত গোশত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষদের মাঝে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের বনগ্রাম বাজার, জলিরপাড়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শেখ মোঃ জিন্নাহ।। এবারও চসিকে কোরবানির বর্জ্য পরিস্কার -পরিচ্ছন্নতায় শীর্ষে দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ড শিবগঞ্জে ভ্যান চালকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হারুন অর রশিদ ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”। 

হারানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংশিত বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ

  • আপডেট সময়ঃ শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৩৭ জন দেখেছেন
কামাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অনন্য কৃতিত্ব ও কাঙ্খিত সেবা পেয়ে খুশিতে পঞ্চমুখ হয়েছেন রাজশাহী ও বরিশাল জেলার দুই পাসপোর্ট যাত্রী। পোর্ট থানা পুলিশ সহ দেশের সকল পুলিশ সদস্যদের জন্য হৃদয়ের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন তারা। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গতকাল বিকালে হার্টের চিকিৎসার জন্য ভারতে যাওয়ার সময় বরিশাল জেলার মালিকান্দা গ্রামের মোঃ রিয়াজ পাসপোর্ট সহ আমেরিকান ৪শ ডলার হারিয়ে ফেলে। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশকে জানালে থানা পুলিশের চৌকস দল সিসিটিভি ফুটেজ এবং সোর্সের মাধ্যমে তার হারিয়ে যাওয়া টাকা মালামাল উদ্ধার করে দেয়। উদ্ধারকৃত মালামাল ও নগদ টাকা পেয়ে আবেগাপ্লুতে কেঁদে ফেলেন রিয়াজ। এসময় থানা পুলিশের ব্যাপক প্রশংসা করে তিনি বলেন, এতো দ্রুত তার মালপত্র ফিরে পাবে কখনোই আশা করিনি। মোঃ রিয়াজ বরিশাল জেলার মালিকান্দা গ্রামের নুরে আলমের ছেলে। অন্যদিকে মঙ্গলবার বেলা ১১ টার সয়ম রাজশাহী জেলার আবুল ফজল ভারত থেকে বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন এসে কাজ শেষ করার পরে তার কাছে থাকা ব্যাগটি হারিয়ে যায়। ব্যাগের মধ্যে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, পাসপোর্ট, এটিএম কার্ড ও অন্যান্য জরুরী কাগজপত্র ছিলো। তিনি ভারত থেকে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরছিলেন। এ ঘটনায়ও বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ কামাল হোসেন ভূইয়া তাৎক্ষণিকভাবে একই প্রক্রিয়ায় থানার চৌকস টিম দিয়ে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে আবুল ফজলের ব্যাগটি উদ্ধার করে তার হাতে তুলে দেন। আবুল ফজল রাজশাহী জেলার পুঠিয়া থানার বাবর আলীর ছেলে। পৃথক দুটি ঘটনায় বাংলাদেশি দুই পাসপোর্ট যাত্রীকে এমন নজিরবিহীন সেবা দেওয়ায় আনন্দে আত্মহারা পাসপোর্ট যাত্রীদের অনবদ্য প্রশংসায় এ যেন আরো গতি বাড়িয়ে দিলো পুলিশের কর্মকান্ডে। সেবা গ্রহীতা আবুল ফজল বলেন, আজ বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ আমাকে যে ভাবে সহযোগিতা করলো তাতে আমি অনেক খুশি। অফিসার ইনচার্জ কামাল হোসেন ভূইয়া যে মহানুভবতা দেখালেন সারাজীবন মনে থাকবে। সেবা গ্রহীতা মোঃ রিয়াজ বলেন, আমরা খুবই গরীব মানুষ।টাকাটা ফিরে না পেলে আমার হার্টের চিকিৎসা করাতে পারতাম না। স্যালুট বাংলাদেশ পুলিশের, স্যালুট বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের প্রতি। বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ কামাল হোসেন ভূইয়া বলেন, মানুষের জান মালের নিরাপত্তায় বাংলাদেশ পুলিশ তথা বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ সব সময় সক্রিয় ভূমিকা পালন করে চলেছে। শান্তি, শৃঙ্খলা, উন্নয়ন, নিরাপত্তায় সর্বত্র কাজ করে পুলিশ। দুই পাসপোর্ট যাত্রীকে তাৎক্ষণিকভাবে সেবা দিয়ে আমরাও আনন্দিত।
Enter

Sk Kamal

Enter

You sent

Enter

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......