1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”।  ঝিনাইগাতীতে মিলন হত্যার আসামী কাজল গ্রেফতার র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’র সক্রিয় সদস্য কর্ণফুলী থানা এলাকা থেকে উগ্রবাদী পুস্তিকা সহ গ্রেফতার -০২।  সোনে মেরিনচর পাড়া প্রাথমিক ও নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় আলীকদম উপজেলায় শিক্ষা ক্ষেত্রে অনন্য নিদর্শন

বরগুনার,আমতলীতে জেলের জ্বালে আগুনে পুড়ে ছাই হওয়ায় নিঃস্ব জেলে পরিবার

  • আপডেট সময়ঃ সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৪৮ জন দেখেছেন

সাইফুল্লাহ নাসির,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলী উপজেলার পশ্চিম ঘটখালী গ্রামের জেলে আব্বাস হাওলাদারের জ্বাল দুস্কৃতকারীরাদের দেওয়া আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ায় জীবিকার একমাত্র সম্বলটুকু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে জেলে পরিবার।

জেলে আব্বাস হাওলাদার আমতলীর পায়রা নদীতে ইলিশ মাছ শিকারের মাধ্যমে ৭জনের পরিবারের  জীবিকা নির্বাহ করেন।

গতকাল (রবিবার) মাছ শিকার করে প্রতিদিনের মতো নদীর পাড়ে নৌকা রেখে বাড়ী চলে যান।আজ (সোমবার) সকাল বেলা এলাকার লোক জনের ডাক চিৎকারে নদীর পাড়ে গিয়ে দেখে নৌকায় আগুন জ্বলছে।শত চেষ্টা করেও বাঁচার অবলম্বনটুকু রক্ষা করতে পারেননি। আজ সকালে কান্না জড়িত কন্ঠে জেলে আব্বাস হাওলাদার বলেন,সকাল থেকে বিভিন্ন স্থানে ঘুরছি পরিবার পরিজন নিয়ে কি করবো ভেবে পাইনা।তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন এনজিও থেকে লোন নিয়ে জাল কিনে মাছ ধরে পরিবার পরিজন নিয়ে সংসার চালাই।আমি এখন পরিবার পরিজন নিয়ে কি করবো,কি খাবো।

আগুনে পুড়ে যাওয়ায় আব্বাস হাওলাদার এর ক্ষতির পরিমাণ প্রায় দেড় লক্ষ্য টাহা।

আব্বাস হাওলাদার এর স্ত্রী পারভীন বেগম বলেন,সকালে উপায় না দেইখ্যা মৎস্য স্যারের কাছে গেছিলাম।হে কইলো থানায় আবেদন করেন। তারপর আমার যা করার আমি করবো। মোগো এহন মরা ছাড়া উপায় নাই।পারভিন বেগম আরও বলেন,৭ জনের সংসারে একমাত্র আয় এই ইলিশ মাছের জ্বাল। ৪টি এনজিও থেকে লোন নিয়ে মাছ ধরে পরিশোধ করি। এখন মৃত্যু ছাড়া উপায় নেই আমাদের।

 

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ,কে,এম মিজানুর রহমান বলেন,ঘটনা শুনেছি কিন্তু এখনো কোন আবেদন পাইনি। আবেদন পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......