1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও কুরবানীর সমস্ত গোশত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষদের মাঝে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের বনগ্রাম বাজার, জলিরপাড়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শেখ মোঃ জিন্নাহ।। এবারও চসিকে কোরবানির বর্জ্য পরিস্কার -পরিচ্ছন্নতায় শীর্ষে দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ড শিবগঞ্জে ভ্যান চালকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হারুন অর রশিদ ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”। 

র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর পৃথক দুটি অভিযানে ফেনী থেকে ১৫৭ বোতল ফেন্সিডিল এবং ৩৩ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ০৭ জন মাদক ব্যবসায়ী আটক -০৭

  • আপডেট সময়ঃ মঙ্গলবার, ১ নভেম্বর, ২০২২
  • ৭৫ জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: “বাংলাদেশ আমার অহংকারচ্ এই স্লোগান নিয়ে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জোড়ালো ভূমিকা পালন করে আসছে।

র‍্যাব সৃষ্টিকাল থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে।

র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, দুর্ধষ চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার এবং বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদক উদ্ধারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

অদ্য ০১ নভেম্বর ২০২২ ইং তারিখে ফেনী জেলার মহিপাল এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে ১৫৭ বোতল ফেনসিডিল এবং ৫৩ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ০৭ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-৭,

চট্টগ্রাম। নিম্নে বিস্তারিত উল্লেখ করা হলোঃ

ক। র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি পিকআপ যোগে মাদকদ্রব্য গঁাজা বহন করে বিক্রির উদ্দেশ্যে কুমিল্লা হতে চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ০১ নভেম্বর ২০২২ ইং তারিখ ০১:০০ ঘটিকায় র‍্যাব- ৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন মহিপাল এলাকায়

ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাকা রাস্তার উপর একটি অস্থায়ী চেকপোষ্ট স্থাপন করে গাড়ী তল্লাশী শুরু করে। এসময় র‍্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি পিকআপকে সন্দেহজনক মনে হলে র‍্যাব সদস্যরা পিকআপটি থামানোর সংকেত দিলে উক্ত পিকআপটি না থামিয়ে দ্রুত

গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে র‍্যাব সদস্যরা পিকআপসহ আসামী মোঃ আমিরুল ইসলাম রবিন (২১), পিতা- মহিন উদ্দিন, সাং- কুলাপাড়া, থানা- চান্দগঁাও, জেলা- চট্টগ্রামকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরবতর্ীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীর দেখানো ও

সনাক্তমতে উক্ত পিকআপের পিছনে মালামাল বহন করার জায়গায় ০২ টি প্লাস্টিকের বস্তার ভিতর হতে মোট ৩৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার পূর্বক আসামীকে গ্রেফতার করা হয় এবং মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত পিকআপটি জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা

যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবৎ ড্রাইভিং পেশার আড়ালে সুকৌশলে মাদকদ্রব্য গঁাজা কুমিল্লা জেলার সীমান্তবতর্ী এলাকা থেকে ক্রয় করে পরবতর্ীতে ফেনী, চট্টগ্রামসহ পার্শ্ববতর্ী জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের

আনুমানিক মূল্য ০৫ লক্ষ টাকা।

 

খ। অপর একটি সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি

প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেলযোগে মাদকদ্রব্য বহন করে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে কুমিল্লা হতে চট্টগ্রাম এর দিকে নিয়ে যাচ্ছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ০১ নভেম্বর ২০২২ ইং তারিখ ০৬:৫০ ঘটিকায় র‍্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন মহিপাল

এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পঁাকা রাস্তার উপর একটি অস্থায়ী চেকপোষ্ট স্থাপন করে গাড়ী তল্লাশী শুরু করে। এ সময় একটি প্রাইভেটকার ও একটি মোটরসাইকেল তল্লাশী করে আসামী ১। মোঃ জিয়াউর রহমান (৩৭), পিতা- হাজী আহম্মেদুর রহমান, সাং-দোয়াজীপাড়া, ২। মোঃ সাহাদাত হোসেন (৩১), পিতা- নিজামুল হক, সাং- মাহমুদাবাগ, ৩। মোঃ আমরুল হাসান

(২৪), পিতা- মোঃ জাফর ইকবাল, সাং- টেরিয়াল বাজার, ৪। মোঃ সজিব (২০), পিতা- মোঃ সেলিম, সাং- দক্ষিন পেদাইনগর সর্ব থানা- সীতাকুন্ড, জেলা-চট্টগ্রাম, ৫। মোঃ ফারুকুল ইসলাম (৩৪), পিতা- মোঃ আবুল হাসেম, সাং- দেওয়ানহাট, থানা-ডবলমুড়িং, জেলা-চট্টগ্রাম এবং ৬। মোঃ

সেলিম উদ্দিন (৪০), পিতা- আবু তাহের, সাং-সুইদালী, থানা-মীরসরাই, জেলা-চট্টগ্রামদের আটক করা হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের দেখানো ও

সনাক্তমতে উক্ত প্রাইভেটকার এবং মোটরসাইকেল তল্লাশী করে ০২ টি স্কুল ব্যাগের ভিতর হতে সর্বমোট ১৫৭ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার পূর্বক আসামীদেরকে গ্রেফতার করা হয় এবং মাদক

পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার এবং মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়। আটককৃত

আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ড্রাইভিং পেশার

আড়ালে সুকৌশলে মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল কুমিল্লা জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ক্রয় করেপরবতর্ীতে ফেনী, চট্টগ্রামসহ পার্শ্ববর্তী জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ০১ লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা।

 

গ্রেফতারকৃত আসামী সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে ফেনী জেলার সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......