1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”।  ঝিনাইগাতীতে মিলন হত্যার আসামী কাজল গ্রেফতার র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’র সক্রিয় সদস্য কর্ণফুলী থানা এলাকা থেকে উগ্রবাদী পুস্তিকা সহ গ্রেফতার -০২।  সোনে মেরিনচর পাড়া প্রাথমিক ও নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় আলীকদম উপজেলায় শিক্ষা ক্ষেত্রে অনন্য নিদর্শন

নড়িয়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ দেড় শতাধিক বোমার বিস্ফোরণ, পুলিশসহ আহত ৫ জন।

  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮৩ জন দেখেছেন

রিপোর্টঃ মোঃ ওবায়েদুর রহমান সাইদ শরীয়তপুর প্রতিনিধি। শরীয়তপুর জেলার -নড়িয়া উপজেলার -নড়িয়া আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া দেড় শতাধিক বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। এক ঘণ্টা চেষ্টা করে ৩৫ রাউন্ড শটগানের ফাঁকা গুলি ছোড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে নড়িয়া থানা পুলিশ। আজ  বুধবার সন্ধ্যায়   নড়িয়া বাজারের বড় ব্রীজ এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায় শরীয়তপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডে নড়িয়া উপজেলা  সদস্য প্রার্থী হয় ভিপি মোস্তফা মামুন ও তার স্ত্রীর বড় ভাই  ইউনুস শেখ। নির্বাচনে উভয় প্রার্থী পরাজিত হয়।  এরপর থেকেই দুই গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এর জের ধরে বুধবার বিকেলে ভিপি  মোস্তফা  মামুন দলবল নিয়ে নড়িয়া বাজারে  ইউনুস শেখ গ্রুপের উপর হামলা করতে আসলে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে, চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। এসময় দুই গ্রুপের লোকজন দেড় শতাধিক হাত বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমার বিস্ফোরণে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে নড়িয়া উপজেলা পুরা শহরে। হামলায় ২ পুলিশসহ ৫ জন আহত হয়েছে। ১ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে ৩৫ রাউন্ড শটগানের গুলি ব্যবহার করে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।এবিষয়ে জানতে একাধিক বার চেষ্টা করেও ভিপি মোস্তফা ও ইউনুস শেখকে পাওয়া যায়নি।

নড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হা‌ফিজুর রহমান বলেন আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দেখতে হয় এ সময় সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনতে ৩৫ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ব্যবহার করা হয়।  এসময় আমাদের দুজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......