1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামি মোঃ রায়হান’কে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-১১। সীতাকুণ্ডে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ যানজট সৈনিক কল্যাণ সংস্থা Uno নিকট খেজুরের বীজ প্রদান বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মাস ব‍্যাপি সাংগঠনিক কর্মসূচি 2024 সম্পন্ন। বরগুনার তালতলীতে অবৈধ চোলাই মদসহ আটক ১ জন। “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়”– “শিক্ষায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের আন্তরিকতা প্রশংসনীয়” শেরপুরের ঝিনাইগাতী তিনজন হোটেল মালিককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা ২ কেজি গাঁজা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী বরগুনা ডিবি পুলিশের হাতে আটক।

বিরিয়ানির লোভ দেখিয়ে শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা

  • আপডেট সময়ঃ রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৯৭ জন দেখেছেন

হেলাল উদ্দিনঃ বিরিয়ানি খাওয়ানোর নাম করে চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় পোর্ট কলোনির পরিত্যক্ত বাসায় সুরমা আক্তার নামে সাত বছর বয়সী এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

 

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিল শিশুটি। রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিশুটিকে এক রিকশাচালক তুলে নিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

 

শনিবার থেকে নিখোঁজ হয় শিশু সুরমা আক্তার। এরপর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ওই শিশুর বাবা-মাকে নিয়ে আসা হয় শনাক্তের জন্য। অথচ তার বাবা-মা পুরো রাত অপেক্ষায় কাটিয়েছেন মেয়েকে জীবিত ফিরে পাবেন এ আশায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মেয়েকে পাওয়া গেল প্রাণহীন।

 

শিশুটির বাবা বলেন, ‘বিকেলে এক রিকশাচালক আমার মেয়েকে বলেছে আঙ্কেল এক জায়গায় বিরিয়ানি দিচ্ছে তুই কি আমার সাথে যাবি। তখন আমার মেয়ে ওই চালকের রিকশায় করে চলে যায়। তারপর আমার মেয়েকে আর খুঁজে পাইনি।’

 

স্থানীয়রা বলেন, ‘এই বাসাগুলো অনেকদিন ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। এগুলো না ভাঙার কারণে দিনেরাতে এখানে অসামাজিক কার্যকলাপ হচ্ছে।’

 

মরদেহ উদ্ধারের পর পরই ঘটনাস্থলে আসে সিআইডির ফরেনসিক টিম। নানা ধরনের আলামতও সংগ্রহ করে তারা। প্রাথমিকভাবে ওই শিশু কন্যাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। তবে ধর্ষণের অভিযোগ নিশ্চিত হতে ময়নাতদন্তের অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে তদন্তকারী সংস্থাকে।

 

সিএমপির বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় মনে হচ্ছে কেউ ওই শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। বাকিটা ময়নাতদন্তের পর বুঝতে পারবো।’

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সন্ধ্যার পরপরই ওই শিশু কন্যাকে হালিশহর বড়পোল থেকে বন্দর পোর্ট কলোনির এই পরিত্যক্ত বাসায় নিয়ে আসা হয়েছিল। সুরমা নামের এ শিশু কন্যার বাবা রিকশাচালক এবং মা গৃহকর্মী। ধর্ষণের পর এ শিশু কন্যাকে হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন এক রিকশাচালককে খুঁজছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......