1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও কুরবানীর সমস্ত গোশত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষদের মাঝে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের বনগ্রাম বাজার, জলিরপাড়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শেখ মোঃ জিন্নাহ।। এবারও চসিকে কোরবানির বর্জ্য পরিস্কার -পরিচ্ছন্নতায় শীর্ষে দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ড শিবগঞ্জে ভ্যান চালকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হারুন অর রশিদ ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত মংপ্রু মার্মার পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন, আয়েরও কোন উৎস নেই ঝিনাইদহ চেক পোস্টে ২৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কালাইয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পশুর হাট। *মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা-২০২৪ উপলক্ষে ৫০ টি দুস্থ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।* এলজিইডি’র বাস্তবায়নে মুকসুদপুরের বিলচান্দা গ্রামের মানুষ শহরের সুবিধা পেতে চলেছে সাগরিকা ও হালিশহর বড়পুল মহেশখাল পাড়স্থ পশুর হাট পরিদর্শনে সিএমপি পুলিশ কমিশনার “সাংবাদিকতা সংক্রান্ত নেতিবাচক লেখাগুলো ফেসবুকে প্রচার বন্ধ হোক”- “সাইদুর রহমান রিমন”। 

হবিগঞ্জের মাধবপুরে হত্যার ২ আসামি গ্রেফতার ‘আদালতে স্বীকারোক্তি জবানবন্দি প্রদান

  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, ১৯ আগস্ট, ২০২২
  • ৮৩ জন দেখেছেন

 

মীর দুলাল( হবিগঞ্জ) জেলা প্রতিনিধি! হবিগঞ্জের মাধবপুরে চাঞ্চল্যকর গৃহীনি খুশনাহার (৪৫) হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন মূল আসামী সহ গ্রেফতার ০২! হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রশি উদ্ধার,বৃহস্পতিবার (১৮ আগষ্ট২২) ইং দুপুরে হবিগঞ্জ জেলা বিচারক আদালতে  মূল আসামী বিজ্ঞ “আদালতে দোষ স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান মাধবপুর থানা পুলিশের সুত্রে জানা যায় গত ০৮ জুন  ২২ ইং  রাত অনুমান ০৮.৩০ ঘটিকার সময় ০৬নং শাহজাহানপুর ইউনিয়নের ফরহাদপুর গ্রামের  জনৈক নুর আলীর মেয়ে ভিকটিম মোছাঃ খুশনাহার আক্তার (৪৫) স্বামী-তাজুল ইসলাম প্রতিদিনের ন্যায় তাহার মায়ের সাথে খাওয়া দাওয়া শেষ করে তাহার মা নিজ ঘরে ঘুমাইয়া পড়ে্ এবং ভিকটিম তার নিজ ঘরে চলিয়া যায়।  ০৯/০৭/২০২২  ইং ভোর ০৬.০০ ঘটিকার সময় ভিকটিমের পাশের ঘরের জনৈক ধনু মিয়া ঘুম থেকে উঠে দেখতে পায় মোছাঃ খুশনাহার আক্তার (৪৫) তাহার বসত ঘরের বাহিরে দরজার পাশে পড়িয়া আছে।

তখন ধনু মিয়া ডাক চিৎকার করিলে ধনু মিয়ার স্ত্রী সহ খুশনাহারের মা, ভাই ও আত্বীয় স্বজনগন ভিকটিমের ঘরের সামনে আসিয়া দরজার সামনে ভিকটিম মোছাঃ খুশনাহার আক্তারকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়।

থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করিয়া ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করেন।

ভিকটিমের ভাই মোঃ মছরব আলী, পিতা-মোঃ নুর আলী, গ্রাম- ফরহাদপুর থানা- মাধবপুর, জেলা -হবিগঞ্জ এর অভিযোগের প্রেক্ষিতে অফিসার ইনচার্জ মাধবপুর থানার মামলা নং-১৭/৩১১, তারিখ- ১১/০৭/২০২২ইং ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড রুজু করিয়া এসআই (নিঃ) মোঃ জাকারিয়া এর উপর তদন্ত ভার অর্পণ করেন।

ঘটনার পর টিম মাধবপুর থানার একটি চৌকস টিম হবিগঞ্জ জেলার মান্যবর পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলী মহোদয়ের দিক নির্দেশনায় সহাকারী পুলিশ সুপার মাধবপুর সার্কেল এর তত্ত্বাবধানে অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক এর নেতৃত্বে স্থানীয় ভাবে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ক্লুলেস হত্যা মামলাটির দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেন।

অত্র ঘটনায় জড়িত পলাতক আসামী  মোঃ তাজুল ইসলাম (৪৫) পিতা-মৃত আফছার উদ্দিন

মোছাঃ ছালেমা খাতুন (৩৮) স্বামী-মোঃ তাজুল ইসলাম উভয় সাং-ফরহাদপুর, ৬নং ইউ/পি, থানা-মাধবপুর, জেলা-হবিগঞ্জদের মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) মোঃ জাকারিয়া ও সঙ্গীয় অফিসার – ফোর্স সহ ইং ১৭/০৮/২২ ইং চট্টগ্রাম জেলার ভুজপুর থানা এলাকার প্রত্যন্ত গ্রাম হইতে ভোর বেলায় তাদের গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের নিয়ে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত একটি রশি আসামীর বাড়ীর পিছনের জঙ্গল হইতে আসামীর দেখানো মতে উদ্ধার করা হয়।

অদ্য আসামী তাজুল ইসলাম ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট  মাসুমা আক্তার এর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

আসামীদ্বয়কে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......