1. admin@dailyoporadhonusondhanltd.net : admin :
শিরোনামঃ
গভীর নলকূপের ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অজ্ঞাত এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। র‌্যাব-৭,চট্রগ্রাম’র অভিযানে যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাকিল হোসেন গ্রেফতার।  ঘূর্ণিঝড় রেমালে বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা অ্যালার্ট-৪ জারি চট্টগ্রামে স্মরণ সভা ইরানের নিরাপত্তা আরো জোরদার করা প্রয়োজন – নিজামী কালাই এ জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ উদ্বোধন হারুন অর রশিদ রিমেলের তান্ডবে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে আমতলীর নিম্নাঞ্চল  ইমাম ও মুয়াজ্জিন নিয়োগ নিয়ে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রকাশ করা কে এই আবদুর রহমান? আমতলীতে ‘রেমাল’ মোকাবেলায় জরুরী সভা, প্রস্তুত ১১১ সাইক্লোন শেল্টার তেতুলিয়ায় উপজেলা নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সৌন্দর্য বর্ধক বাঁশঝাড় উধাও ময়মনসিংহের ফুলপুরে দুস্থ অসহায় ৪২৬০জন পেলেন ভিজিএফ কার্ড

খুলনায় ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেয়া প্রধান শিক্ষক দীপ্তিশ্বর বিশ্বাস জেলহাজতে,

  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট, ২০২২
  • ১০৯ জন দেখেছেন

মোঃ ইমানুর রহমান, জেলা প্রতিনিধি খুলনা,খুলনার রুপসা উপজেলার ডোবা বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের উত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দেয়া প্রধান শিক্ষক দীপ্তিশ্বর বিশ্বাসকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে এক অভিভাবকের মামলায় তাকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

সূত্র জানায়, প্রধান শিক্ষক দীপ্তিশ্বর বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরেই নবম ও দশম শ্রেণীর ছাত্রীদের কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করলে পরীক্ষায় নম্বর বেশি দেয়া হবে, রাজি না হলে অকৃতকার্য করিয়ে দেয়া হবে -এমন ভয়ভীতি তিনি প্রায়শ: ছাত্রীদের দেখাতেন।

বুধবার সকালে তিনি নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে কু প্রস্তাব দেন ও জোর প্রয়োগের চেষ্টা চালান। এসময় ছাত্রীটি চিৎকার করে অন্য সহপাঠিদের জড়ো করে। বিষয়টি জানাজানি হলে অপকর্মের বিচারের দাবিতে ওই দিনই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা । তারা শিক্ষক শিক্ষিকাদের অবরুদ্ধ করে রাখে। ভাঙ্গচুরও চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ও প্রধান শিক্ষককে তাদের হেফাজতে নেয়।

রাতে এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে রূপসা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমনে মামলা দায়ের করেন । অন্যদিকে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে প্রধান শিক্ষক দীপ্তিশ্বর বিশ্বাস এর বিরুদ্ধে তারই এক নারী সহকর্মী নারী ও শিশু নির্যাতন দমনে মামলা করেন, যা এখনো চলমান রয়েছে।

শেয়ার করুন

আরো দেখুন......